প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আন্দোলন আর সংলাপ একসাথে চলতে পারে না

বাহাদুর বেপারী : ৭ নভেম্বরের পরে আর সংলাপ হবে না, এখানে আমাদের সাধারণ সম্পাদক সাহেব বোঝাতে চেয়েছেন, আসলে সময় থাকবে না। যে বিষয়টি নিয়ে আলাপ হবে এটির আসলে কার্যকারিতা দুর্বল হয়ে যাবে। কিন্তু আলোচনা তো চলতেই পারে। ৭ তারিখের পরে যদি তফসিল ঘোষণা হয়ে যায়, তাহলে তো আওয়ামী লীগ ব্যস্ত থাকবে নির্বাচন নিয়ে। এটিরই ইঙ্গিত দিয়েছেন আমাদের সাধারণ সম্পাদক।

আসলে সংলাপ চলাকালীন সময়ে যদি কেউ রাস্তায় অরাজকতা সৃষ্টি করে, তাহলে তো প্রতিহত করতেই হবে। আপনি সংলাপের কথা বলবেন, আবার রাস্তায় নৈরাজ্য সৃষ্টি করবেন এটিতো মেনে নেয়া যায় না। তাহলে তো আপনি দুই অবস্থানের মধ্যে চলে গেলেন। আপনার মনে এক, আর বাহিরে আরেক এটি তো হয় না।

এখানে দুটি বিষয় রয়েছে। একটি হচ্ছে,  আলোচনার মাধ্যমে সমাধান। অন্যটি হচ্ছে, রাজপথে থেকে সমাধান। আপনাকে যে কোন একটিকে বেছে নিতে হবে। আপনি যেহেতু আলোচনা শুরু করেছেন, এখন যদি রাজপথে থেকে অরাজকতা সৃষ্টি করেন, তাহলে তো আপনি নিজের সাথেই নিজে প্রতারণা করলেন।

আন্দোলন আর সংলাপ তো একসাথে চলতে পারে না। যারা সংলাপ পছন্দ করে না, সংবিধান মানে না তারা যদি এর সাথে যুক্ত হয়ে আন্দোলন করে, আন্দোলনের নামে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড এবং অরাজকতা বা নাশকতার চেষ্টা করে তখন রাষ্ট্রের দায়িত্ব পড়ে রাষ্ট্রকে রক্ষা করার।

পরিচিতি: সাবেক সভাপতি, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ/সম্পাদনা: ফাহিম আহমাদ বিজয়।

 

সর্বাধিক পঠিত