প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অবাধ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের দাবিতে ৬ নভেম্বর দেশব্যাপী বাম জোটের পদযাত্রা

রফিক আহমেদ : বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক সাইফুল হক বলেলেছে, সাতক্ষীরার জনপদে দীর্ঘদিন ধরে এক ভীতিকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে। ২০১৩-১৫ সালের দিকে সেখানে মৌলবাদী জঙ্গিগোষ্ঠীর তাণ্ডবে জনপদ অস্থির ছিল। আর এখন সেখানকার জনগণ রাষ্ট্রীয় বাহিনীর অত্যাচার নির্যাতনে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। রোববার সকাল ১১ টায় পল্টনস্থ মুক্তিভবনের প্রগতি সম্মেলন কক্ষে গণতান্ত্রিক বাম জোটের সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক বলেন, আমি সাতক্ষীরায় রাজনৈতিক কর্মীদের ওপর পুলিশ ও প্রশাসনের নিপীড়ন নির্যাতনে উদ্ভ‚ত পরিস্থিতি সরেজমিন পরিদর্শন করেছি। এটা আমরা দীর্ঘদিন ধরেই শুনে আসছি। গত ২০ সেপ্টেম্বরের ঘটনার যে সত্য তার প্রমাণ পেয়েছি। সেদিন অবাধ নিরপেক্ষ গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের দাবিতে বাম গণতান্ত্রিক জোট ঘোষিত দেশব্যাপী জেলা পর্যায়ে নির্বাচন কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচিতে সাতক্ষীরায় বাম জোটের মিছিলে পুলিশি হামলা চালিয়ে বাসদ সাতক্ষীরা জেলা সমন্বয়ক নিত্যানন্দ সরকার, বাসদ (মার্কসবাদী) নেতা অ্যাড. খগেন্দ্রনাথ ঘোষ ও প্রশান্ত রায়কে গ্রেফতার করে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মিথ্যা মামলা দায়ের করে দীর্ঘদিন কারাবন্দি করে রাখে। জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ও জেলা জজ আদালত গ্রেফতারকৃত বাম জোটের নেতৃবৃন্দকে জামিন দেয়নি। হাইকোর্ট থেকে তাদের জামিন নিতে হয়েছে।

তিনি বলেন, গত ১ নভেম্বর তালার খলিশখালীতে বাম জোটের জনসভার কর্মসূচি ছিল। জনসভার অনুমোদনের জন্য সাতক্ষীরার এসপি বরাবরে আবেদন করা হয়েছিল। তার প্রেক্ষিতে জনসভার প্রচার কাজ চালানোর জন্য মৌখিকভাবে অনুমতিও দিয়েছিল পুলিশ প্রশাসন। কিন্তু জনসভার আগের দিন ৩১ অক্টোবর সন্ধ্যায় স্থানীয় পাটকেলঘাটা থানা থেকে জানানো হয় যে, জনসভা করা যাবে না এবং রাত ১২টায় পুনরায় শেখ আবুল কালামকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে থানায় আটকে রাখা হয় এবং পুলিশ খলিশখালি পল্লীমঙ্গল ক্লাব মাঠে নির্মিত জনসভা মঞ্চ ভেঙে দেয়।
নেতৃবৃন্দ ১ নভেম্বর এসপি কার্যালয়ে এসপি এবং ডিসির সাথে সাক্ষাৎ করে ঘটনা বর্ণনা করেন। কিন্তু নেতৃবৃন্দের সাথে সামান্য সৌজন্য না দেখিয়ে ঔদ্ধ্যত্ত¡পূর্ণ আচরণ করেন ডিসি ও এসপি।

তিনি আরো বলেন, আমরা সাতক্ষীরার পূর্বাপর বিরোধী মত দমনের রাষ্ট্রীয় বাহিনীর এহেন নির্যাতন, মিথ্যা মামলা হয়রানী, গেফতার বাণিজ্যের এবং এসপি-ডিসি’র বাম জোটের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সাথে ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। একই সাথে এ ধরনের অসৌজন্যমূলক ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণের জন্য সাতক্ষীরার এসপি মো. সাজ্জাদুর রহমান, জেলা প্রশাসক মোস্তফা কামালের অবিলম্বে প্রত্যাহার ও অপসারণ দাবি করছি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক মো. শাহ আলম, বাসদের কেন্দ্রীয় নেতা বজলুর রশীদ ফিরোজ, বাসদ (মার্কসবাদী)’র কেন্দ্রীয় নেতা শুভ্রাংশু চক্রবর্তী, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশররফ হোসেন নান্নু ও সম্পাদকমÐলীর সদস্য আজিজুর রহমান, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহŸায়ক হামিদুল হক, বিপ্লবী গণতান্ত্রিক পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা মোমিনুর রহমান বিশাল।

কর্মসূচি : বর্তমান সরকার পদত্যাগ করে রাজনৈতিক দলসমূহের সাথে আলোচনা করে দলনিরপেক্ষ নির্বাচনকালীন তদারকি সরকার গঠন, তফসিল ঘোষণার আগে সংসদ ভেঙে দেয়া, নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন, সংখ্যানুপাতিক নির্বাচন ব্যবস্থা চালু, কালো টাকা, পেশীশক্তি ও সাম্প্রদায়িক প্রচারণা রোধসহ নির্বাচন ব্যবস্থার আমূল সংস্কার, ঊঠগ ব্যবহার না করা, না ভোটের বিধান চালু, আরপিও’র দল নিবন্ধনের অগণতান্ত্রিক শর্ত বাতিল, স্বতন্ত্র সদস্যদের নির্বাচনের জন্য শতকরা ১ ভাগ ভোটারের সমর্থন সূচক স্বাক্ষরের বিধান বাতিল করাসহ বিভিন্ন দাবিতে আগামী ৬ নভেম্বর ২০১৮ মঙ্গলবার দেশব্যাপী পদযাত্রা ও গণসংযোগ কর্মসূচি পালিত হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ