প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাংবিধানিক ও আইনগত বিষয়ে সংলাপ চেয়ে দ্বিতীয় দফায় জাতীয় ঐক্যেফ্রন্টের চিঠি

আহমেদ জাফর : সাংবিধানিক এবং আইনগত দিক বিশ্লেষণের জন্য উভয় পক্ষেরই বিশেষজ্ঞসহ সীমিত পরিসরে আলোচনার আহ্বান জানিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের চার নেতা আওয়ামী লীগের সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দ্বিতীয় দফায় সংলাপ চেয়ে চিঠি দিয়েছেন। রবিবার ৪ নভেম্বর জাতীয় ঐক্যেফ্রন্টের পক্ষ থেকে চিঠি দেন।

আ ও ম শফিকুল্লাহ যুগ্ম সাধারন সম্পাদক গণফোরাম, জগলুল হায়দার আফ্রিদ গণফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্য,মোশতাক আহমেদ সাংগঠনিক সম্পাদক গণফোরাম, শাহানুজ্জামান শুভ সিনিয়র সহ-সভাপতি ঐক্যবদী ছাত্রসমাজ।

আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে চিঠি গ্রহণ করেন আওয়ামী লীগের সভাপতির ব্যক্তিগত সহকারী মোহাম্মদ আলাউদ্দিন ও মাসুদুর রহমান।

প্রধানমন্ত্রী চিঠিতে উল্লেখ আছে, গত ১ নভেম্বর গণভবনে অনুষ্ঠিত সংলাপে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাত দফা দাবির ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে। এ আলোচনার উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য আপনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই
। দীর্ঘ সময় পর্যন্ত আলোচনার পরেও আমাদের আলোচনাটি অসম্পূর্ণ থেকে যায়। সেই দিন আপনি বলেছিলেন (প্রধানমন্ত্রী) আমাদের আলোচনা অব্যাহত থাকবে। তারই পরিপ্রেক্ষিতে অসম্পূর্ণ আলোচনা সম্পূর্ণ করার লক্ষ্যে অতি জরুরী ভিত্তিতে আমরা জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষে আরবও সংলাপে বসতে আগ্রহি। এই ক্ষেত্রে দাবিগুলোর সাংবিধানিক এবং আইনগত দিক বিশ্লেষণের জন্য উভয় পক্ষের বিশেষজ্ঞসহ সীমিত পরিসরে আলোচনা আবশ্যক।

আপনার অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে ,সংলাপ শেষ হওয়ার আগে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা না করার আহ্বান জানিয়ে, ৩ নভেম্বর প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরাবর জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে চিঠি দেয়া হয়েছে।

এ সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আ ও ম শফিউল্লাহ বলেন, সংলাপ শেষ না হওয়া পর্যন্ত জাতীয় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা না করার জন্য আমরা প্রধানমন্ত্রী এবং দলের সাধারণ সম্পাদক কে এর চিঠি দিলাম। আমাদের অসম্পূর্ণ আলোচনাটি সম্পন্ন করার লক্ষ্যেই সীমিত পরিসরে আরেকটি সংলাপের আহ্বান করছি । এজন্যই এই চিঠি দেওয়া হয়েছে ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ