প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘সংলাপ নয়, আসন্ন নির্বাচন সফল করাই সব দলের লক্ষ্য হওয়া উচিত’

তানজিনা তানিন : ঢাকা বিশ্বাবদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক অধ্যাপক ড. জিনাত হুদা বলেছেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সভাপতি ড. কামাল হোসেন সংলাপের বিষয়ে কোনো অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেননি। কারণ তারা ভালোভাবেই জানেন, ৭-দফার সব দাবি রাজনৈতিক ও সাংবিধানিকভাবে মানা সম্ভব নয়। সংলাপে আলোচিত সাত দফা মূল লক্ষ্য না হয়ে, আসন্ন নির্বাচনকে সফল করাই মূল লক্ষ্য হওয়া উচিত সব রাজনৈতিক দলের। সেজন্য সব দলের নমনীয় ভাবমূর্তি পোষণ ও সমান অংশগ্রহণ প্রয়োজন বলেও মনে করেন এই রাজনৈতিক বিশ্লেষক।

এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি আরও বলেন, প্রকৃত অর্থে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি বাংলাদেশের মানুষের কাছে সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য রাজনৈতিক দল। অন্য দলগুলো সম্পর্কে সাধারণ জনগণ জানেও না। তবে বর্তমানে বিএনপি নেতৃত্বশূন্য একটি নাজুক দলে পরিণত হয়েছে। যে দলের সাংগঠনিক অবস্থা ভঙ্গুর। তাদের উচিত কিছু বিষয়ে ছাড় দিয়ে প্রথমে নির্বাচনে যাওয়ার পথ পরিষ্কার করা। তা না হলে জনগণ তাদেরও একসময় ভুলে যাবে।

এক প্রশ্নের জবাবে ড. জিনাত হুদা বলেন, আওয়ামী লীগ সাংবিধানিক ধারা বহাল রেখে ২০১৪ সালের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছে। ৫ জানুয়ারির সেই নির্বাচন বর্জন করায় বিএনপি সমর্থিত মানুষেরা ভোট দিতে পারেননি। বিএনপির নির্বাচনে অংশ না নেওয়া বড় ভুল ছিলো। নির্বাচন হওয়া উচিত প্রতিযোগিতাপূর্ণ। তাই সংঘাত বাদ দিয়ে সকলের সুষ্ঠু প্রস্তুতির মাধ্যমে নির্বাচনে অংশ নেওয়া উচিত।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ