প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সংলাপ: রাজনৈতিক দলগুলোর কাছে প্রত্যাশা

অ্যাডভোকেট শাহনেওয়াজ : গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যেকার টানাপোড়েন নিরসনে সংলাপই হচ্ছে সর্বোত্তম উপায়। আর যে কোন দেশে গণতন্ত্র চর্চার প্রধানতম উপাদানই হচ্ছে নির্দিষ্ট সময় পর পর অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠান। এটি হবে এমন একটি নির্বাচন, যার মাধ্যমে জনগণ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবে। যে কোন গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে একটি গণতান্ত্রিক পরিবেশ থাকা জরুরি। তবে জন্মের পর থেকেই বাংলাদেশে বিরাজ করছে রাজনৈতিক অস্থিরতা। গণতন্ত্র কখনো কোন প্রাতিষ্ঠানিক রূপ না পাওয়ায় এখানকার রাজনীতি বারবার সহিংসতার মুখোমুখি হয়েছে। এদেশে রাজনৈতিক দলগুলোর সংলাপের অভিজ্ঞতা খুবই কম। আগে রাজনৈতিক সংকট নিরসনে কখনোই কোন ক্ষমতাসীন দলকে সংলাপের প্রতি তেমন আগ্রহ প্রদর্শন করতে দেখা যায়নি। যে দু’একবার সরকার বিরোধীদলের দাবি মেনেছে, সেগুলোও সংলাপের মাধ্যমে নয়, বরং তীব্র গণআন্দোলনের কারণে।

অতীতের এমন অভিজ্ঞতার কথা বিবেচনায় রাখলে এবার আওয়ামী লীগ সরকার যেভাবে সংলাপ করলো, সেটা সাধারণ মানুষের মনে বিপুল আশার জন্ম দিয়েছে। কোন প্রবল রাজনৈতিক আন্দোলন বা আন্তর্জাতিক চাপের কারণে নয়, বরং সরকারের সদিচ্ছার কারণেই সম্ভব হয়েছে প্রধান বিরোধী জোটের সঙ্গে এই সংলাপ। যদিও এই সংলাপ থেকে এখন পর্যন্ত সুস্পষ্ট কোন ফলাফল পাওয়া যায়নি, তারপরও এমন তো বলা যাচ্ছে যে- দু’টি পক্ষের মধ্যে বিরোধের বরফ কিছুটা হলেও গলতে শুরু করেছে। পাশাপাশি একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের লক্ষ্যে অন্য রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গেও সংলাপ করছে সরকার।

গণতন্ত্রের নিয়ম হচ্ছে নির্বাচনে বেশির ভাগ আসনে যারা জয়ী হবে তারা সরকার গঠন করবে। কিন্তু দেশের প্রধান দু’টি রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপিকে এটাও মনে রাখতে হবে, দেশ ও জাতির যে কোন সংকট নিরসনে পরস্পরের সহযোগিতা নিয়েই কাজ করতে হবে। দেশের সচেতন প্রতিটি নাগরিকই মনে করেন দুই মেরুতে অবস্থানরত আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি এতক্ষণে বুঝতে পেরেছেন যে চলমান বিরোধ নিরসনে সংলাপই হচ্ছে একমাত্র কার্যকর পথ। এই দুই দলের মধ্যে ন্যূনতম একটা আস্থা ও বিশ্বাস থাকলেই কেবল অতীতের সেই রক্তক্ষয়ী রাজনৈতিক সহিংসতা এড়ানো সম্ভব হবে।

আমরা যদি গণতন্ত্রের বিশ্বজনীন ঘোষণার দিকে তাকাই, তাহলে দেখবো একটি অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনই কেবল গণতন্ত্র ও টেকসই উন্নয়ণের মধ্যে যোগসূত্র হতে পারে। সে কারণেই প্রধান রাজনৈতিক দলগুলোর কাছ থেকে দেশের সচেতন জনগণ আশা করে যে, সংলাপের মধ্যে দিয়েই তারা একটি অবাধ, নিরপেক্ষ এবং গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠানের পথ বের করতে পারবেন।

লেখক পরিচিতি : গবেষক ও সোশ্যাল একটিভিস্ট

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত