প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ঐক্যফ্রন্টের চিঠি পাইনি: ইসি সচিব

ডেইলি বাংলাদেশ : সংলাপ শেষ না হওয়ায় আগে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা না করতে নির্বাচন কমিশনে যে আবেদন করছে ঐক্যফোন্ট। সেই আবেদন পায়নি বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ। সে জন্য এ সপ্তাহে একাদশ তফসিল ঘোষণার প্রস্তুতি রয়েছে বলেও জানান তিনি।

শনিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে অনুষ্ঠিত কমিশন সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

হেলালুদ্দীন আহমেদ বলেন, এ সপ্তাহে তফসিল করার প্রস্তুতি আমাদের রয়েছে। আশ করছি এই সপ্তাহে ঘোষণা হবে। কালকে (রোববার) চূড়ান্ত বৈঠকটি হবে। ওখানে বিস্তারিত তফসিল নিয়ে প্রাথমিক আলোচনা হবে। ওই বৈঠকে তফসিলের চূড়ান্ত হবে কিনা, তা জানা যাবে। বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নেবো কালকে চূড়ান্ত করবে নাকি পরে চূড়ান্ত করবো। ডিসেম্বরের মধ্যে নির্বাচন করার প্রস্তুতি কমিশনের রয়েছে বলেও জানান তিনি।

সংলাপ শেষ না হওয়ায় নির্বাচনের তফসিল পরে ঘোষণার আবেদন প্রসঙ্গে ইসি সচিব বলেন, আমরা ঐক্যফ্রন্টের চিঠি এখনো পাইনি। এটা অফিসে পৌঁছেছে কিনা, আমার জানা নেই। তিনি বলেন, এ বিষয়ে সচিব হিসেবে আমি অবহিত হয়নি, কমিশনও অবহিত হয়নি। ফলে বিষয়টি নিয়ে কোনো আলোচনাও হয়নি। চিঠি যদি এসে থাকে তাহলে রোববার যে কমিশনের মুলতবি সভা রয়েছে সেখানে উপস্থাপন হবে।

বিএনপির সংশোধিত গঠনতন্ত্র গ্রহণ না করার বিষয়ে আদালতের নির্দেশনা প্রসঙ্গে হেলালুদ্দীন আহমেদ বলেন, আদালতের পর্যবেক্ষণ রয়েছে তা বাস্তবায়ন করার জন্য আমরা তা কমিশন সভায় উপস্থাপন করবো। হাইকোর্ট নিষ্পত্তির জন্য একমাসের সময় দিয়েছেন। তার মধ্যেই আমরা নিষ্পত্তি করবো।

বিএনপির দলীয় প্রধান পদে থাকতে পারবেন কিনা এ বিষয়ে বলেন, আমরা এ বিষয়ে কোনো আলোচনা করিনি। যিনি রিট করেছেন তার আবেদন ও আদালতের রায় পেয়েছি। তা পর্যালোচনা করে পরে সিদ্ধান্ত নেবো।

ইসি সচিব জানান, শনিবারের বৈঠকে আরপিও সংশোধনের ফলে অনলাইনে মনোনয়নপত্র দাখিলের বিধান যুক্ত হয়েছে। এক্ষেত্রে অনলাইনে কীভাবে মনোনয়নপত্র দাখিল হবে তার বিধিমালা বৈঠকে অনুমোদন দেয়া হয়েছে। ইভিএম ব্যবহারের বিধিমালা নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

ইসি সচিবালয়ের চূড়ান্ত প্রস্তুতি কমিশনকে অবহিত করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আসন বিন্যাস, রাজনৈতিক দলের নিবন্ধনে যে ৭৫টি আবেদন এসেছিল তা নিষ্পত্তি হয়েছে। ভোটার তালিকা চূড়ান্ত ও সিডি প্রস্তুত হয়েছে।

দেশি-বিদেশি পর্যবেক্ষক নীতিমালা চূড়ান্ত হয়েছে। আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক করে সব মন্ত্রণালয়ে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। নতুন আচরণ বিধিমালা মুদ্রণ করেছি। নির্বাচনি অন্যান্য মালামাল কেনা শেষ হয়েছে। নির্বাচনের ভোটগ্রহণ কর্মকর্তার প্যানেল তৈরি চলমান রয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ