প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

টানা ১৫ ঘণ্টার আমেরিকা পাড়ি দিয়ে কেনিয়া এয়ারলাইনসের ইতিহাস

বাংলা ট্রিবিউন : বিমান সংস্থাগুলোর মধ্যকার প্রতিযোগিতার সুবাদে আফ্রিকা থেকে বিশ্বজুড়ে ফ্লাইটের সংখ্যা অন্য যেকোনও সময়ের চেয়ে এখন বিস্তৃত। এর মধ্যে পূর্ব আফ্রিকা থেকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনা করা হয়েছে। গত ২৯ অক্টোবর এই মাইলফলক ছুঁয়েছে কেনিয়া এয়ারলাইনসের ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার। এর যাত্রীরা নাইরোবির জোমো কেনিয়াটা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিরতিহীন ১৫ ঘণ্টায় নিউ ইয়র্কে পাড়ি দিয়েছে।

নতুন এই ফ্লাইট প্রতিদিন কেনিয়া থেকে জন এফ. কেনেডি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে চলাচল করছে। কেনিয়ার রাষ্ট্রীয় বিমান সংস্থা কেনিয়া এয়ারলাইনসের আশা, এই যাত্রায় উল্লেখযোগ্য মুনাফার মুখ দেখবে তারা।
কেনিয়া এয়ারওয়েজ গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী সেবাস্তিয়ান মিকোজ এক বিবৃতিতে বলেন, ‘এটি আমাদের জন্য রোমাঞ্চকর মুহূর্ত। বিশ্বের যেকোনও স্থানের পর্যটকদের কেনিয়া ও আফ্রিকার প্রতি আকর্ষণের জন্য আমাদের এই ফ্লাইট।’

আমেরিকায় বিরতিহীন ফ্লাইটের সুবাদে ২০১৯ সালে দেশের রাজস্ব ১০ শতাংশ বাড়বে বলে আশাবাদী কেনিয়া এয়ারওয়েজ। তাদের দাবি, ইতোমধ্যে গত সপ্তাহে ১ হাজার ৯৭৪টি বুকিং বেড়েছে।

২০১৭ সালে পর্যটন খাতে ১ দশমিক ১৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় করেছে কেনিয়া। ২০১৬ সালে এই অঙ্ক ছিল ৯৮৯ মিলিয়ন ডলার। অর্থাৎ একবছরে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২০ শতাংশ। দেশটির পর্যটনে আমেরিকা অন্যতম বড় বাজার।
কেনিয়া পর্যটন মন্ত্রণালয়ের হিসাব অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্র থেকে বিমান ভ্রমণ ১৭ শতাংশ বেড়েছে। আমেরিকা থেকে তাদের দেশে একবছরে ১ লাখ ১৪ হাজার ৫০৭ জন ভ্রমণপিপাসু এসেছেন।

আফ্রিকা মহাদেশ থেকে বেশ কয়েকটি এয়ারলাইনস সরাসরি আমেরিকায় যাওয়া-আসার ফ্লাইট পরিচালনা করছে। এর মধ্য ইজিপ্ট এয়ার ও সাউথ আফ্রিকান এয়ারওয়েজ অন্যতম। আন্তর্জাতিক বেসামরিক বিমান সংস্থার (আইসিএও) হিসাব অনুযায়ী, ২০১৭ সালে আফ্রিকান এয়ারলাইনসগুলোর যাত্রী সংখ্যা বেড়েছে ৭ দশমিক ৫ শতাংশ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ