Skip to main content

এ সপ্তাহে জাতীয় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা: ইসি সচিব

সাইদ রিপন: নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেছেন, এ সপ্তাহের মধ্যেই জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করার প্রস্তুতি রয়েছে নির্বাচন কমিশনের (ইসি)। এখন পর্যন্ত ডিসেম্বরে নির্বাচনের লক্ষ্যে চলতি সপ্তাহে তফসিল ঘোষণা করবো। শনিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে কমিশন বৈঠক শেষে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, আজ সভার মূলতবি করা হয়েছে। আগামীকাল বিকাল তিনটায় মূলতবি করা কমিশন সভা আবার সভা বসবে। চূড়ান্ত বৈঠক কালকে হবে ওখানে সিদ্ধান্ত হবে তফসিল কবে হবে। তফসিল কি এই সপ্তাহেই হবে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে সচিব বলেন, আশা করছি, এই সপ্তাহে তফসিল করার প্রস্তুতি আমাদের রয়েছে। নির্বাচন ডিসেম্বরে হবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে সচিব বলেন, আমাদের ডিসেম্বরের মধ্যে নির্বাচন করার প্রস্তুতি আগে থেকেই রয়েছে। চলমান সংলাপ শেষ না হওয়া পর্যন্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা না করতে নির্বাচন কমিশনের কাছে অনুরোধ করেছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট এ বিষয়ে সচিব বলেন, এ বিষয়ে এখনও আমরা অবহিত হইনি। আমি সচিব হিসেবেও অবহিত হইনি। আগামীকাল বিকালে এই বিষয়গুলো কমিশন সভায় উপস্থাপন করা হবে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আরপিও সংশোধনের বিষয়ে ৩১ অক্টোবর মহামান্য রাষ্ট্রপতি যে অডিন্যান্স জারি করেছেন। এই অর্ডিনেন্সে দুইটি বিষয় নিয়ে আসছে সেটি হলো অনলাইনে মনোনয়ন পত্র দাখিল এই দাখিলের বিষয়ে যে বিধিমালা কিভাবে মনোনয়ন পত্র দাখিল করা হবে তার বিস্তারিত বিধিমালাটা আজকে কমিশন সভায় অনুমোদন হয়েছে। এবং আরেকটি হলো যে ইভিএম ব্যবহারের বিধিমালা ওই বিধিমালাও আজকে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। আজকের এই সভাটা মূলতবি করে আগামীকাল বিকাল তিনটায় বসবে। সেসময় এটা চূড়ান্ত হবে। আজ সুধু অনলাইন বিধিমালা চূড়ান্ত হয়েছে। তিনি বলেন, ইতোমধ্যেই ৩০০ আসনের নির্বাচনের যে আসন বিন্যাস সেটা চূড়ান্ত হয়েছে। গেজেট নটিফিকেশন ইতোমধ্যেই সমাপ্ত হয়েছে। ৭৫টি রাজনৈতিক (নতুন রাজনৈতিক দল হিসেবে নিবন্ধনের আবেদন) দলের যে আবেদন ছিল সেটা নিস্পত্তি হয়েছে। আর আমাদের ভোটার তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে এবং যারা কেন্ডিডেট হবে তাদের বিক্রির জন্য সিডি প্রস্তুত করা হয়েছে। পর্যবেক্ষক নীতিমালা চূড়ান্ত অনুমোদন হয়েছে। স্থানীয় পর্যবেক্ষক ১১৯টি সেটাও চূড়ান্ত করেছি। আমাদের যে সমস্ত মন্ত্রনালয়ের সঙ্গে বৈঠক হওয়ার কথা সেটা গত ৩১ অক্টোবর সেই বেঠক হয়ে গেছে। সেই বিষয়ে বিভিন্ন মন্ত্রনালকে আমরা নির্দেশনা দিয়েছি। মেনুয়াল নির্দেশিকা যে বইগুলো বের হওয়ার কথা সেগুলো ইতোমধ্যেই প্রেসে দিয়েছি। আচরণ বিধিমালাটাও মুদ্রণ করেছি। আমাদের প্রস্তুতি সম্পর্কে কমিশনকে অবহিত করেছি।

অন্যান্য সংবাদ