প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সৈয়দ নজরুল ইসলামের সংস্কারহীন বাড়ি যাদুঘর প্রতিষ্ঠার দাবি

সাজিয়া আক্তার : আজ ৩রা নভেম্বর, শোকাবহ জেলহত্যা দিবস। মানব সভ্যতার ইতিহাসে কলঙ্কময়, রক্তঝরা ও বেদনাবিধুর একটি দিন। ১৯৭৫ সালের এই দিনে মধ্যরাতে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের নির্জন প্রকোষ্ঠে চার জাতীয় নেতাকে নির্মমভাবে হত্যা কারা হয়। তাদের একজন দেশের প্রথম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি কিশোরগঞ্জের কৃতি সন্তান শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম। বছর ঘুরে দিনটি এলে আবেগে আপ্লুত হন কিশোরগঞ্জবাসী। বিশেষ করে তার নিজ গ্রাম বীরদামপাড়ার মানুষ স্মৃতিকাতর হয়ে পড়ে। সূত্র : এটিএন নিউজ

কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার যশোদল ইউনিয়নের বীরদামপাড়ার জন্মগ্রহণ করেন সৈয়দ নজরুল ইসলাম। সৈয়দ নজরুল ইসলামের স্মৃতিঘেরা বাড়িতে এখন আর কেউ থাকে না। অযতœ, অবহেলার ছাপ চারদিকে। সংস্কারহীন বাড়িটিতে সৈয়দ নজরুল ইসলামের স্মৃতিস্মারক নেই কিছু। তবে আত্মীয়স্বজন ও প্রতিবেশীরা আজও তার কথা মনে করে চোখের পানি ফেলেন। তাকে নিয়ে গর্ব করেন বীরদামপাড়ার মানুষ।

স্থানীয় লোকেরা বলেন, নির্দোষ একজন ভালো মানুষকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে, এটা খুবই দুঃখজনক। নজরুল ইসলাম অনেক ভাল লোক ছিলেন। উনার হত্যার বিচারটা সূ²ভাবে হয়নি। তার বাড়িটি এখনো পর্যন্ত সংস্কারবিহীন পড়ে আছে। তার বাড়িটিকে যদি সংস্কার করে একটি যাদুঘর বা কোনো প্রতিষ্ঠান করা যেতো, তাতে হয়তো দেশের তরুণ প্রজন্ম অনুপ্রাণিত হতো।

গ্রামের মানুষের দাবি, সৈয়দ নজরুল ইসলামের বাড়িটি ঘিরে একটি প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হোক। যেখানে তার স্মৃতি, সংগ্রাম ও আত্মত্যাগের স্মারক সংরক্ষণ করা হলে তা দেখে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হবে অনেক লোকজন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ