প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সংলাপে ডেকেছেন যখন দরজা বন্ধ করা যাবে না, আবার যাবো : মান্না

সাব্বির আহমেদ : ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, ডেকেছেন যখন আবারও যাবো, ওই দরজা বন্ধ করতে পারবেন না। আবার সংলাপে বসতে হবে। সমাধান না হওয়া পর্যন্ত সংলাপ করতে হবে। সমাধানের আগে নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করা যাবে না।

শনিবার বিকেলে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে ৩ নভেম্বর জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।

মান্না বলেন, তফসিল ঘোষণা করলেই সব শেষ হয়ে যাবে না। মনে রাখবেন, তফসিল ঘোষণার পরও তা পরিবর্তনের ইতিহাস এদেশে আছে।

মান্না বলেন, আমরা দাবি আদায়ে লড়াই করবো৷ দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যাবো। সংলাপও চলতে হবে। সংলাপে ডেকেছেন যখন দরজা বন্ধ করা যাবে না। আবার সংলাপে বসতে হবে। সমাধান না হওয়া পর্যন্ত সংলাপ করতে হবে। সমাধানের আগে নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করা যাবে না।

তিনি বলেন, ৫ বছর ধরে একটি ৪২০ নির্বাচন দিয়ে ক্ষমতায় আছে সরকার৷ এখন তারা আবারও এমন নির্বাচন করতে চায়। মানুষ বিক্ষুব্ধ। মানুষ এই অরাজকতা চায় না। সকল নিযাতন, নিপীড়নের বিরুদ্ধে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠিত হয়েছে।

সংলাপ বিষয়ে তিনি বলেন, ড. কামাল হোসেন চিঠি দেন সংলাপ চেয়ে। একদিন আগেও সরকারের সব মন্ত্রী বলেছেন, সংলাপ আবার কী? সেই মন্ত্রীরাই একটি চিঠির ডাকে সাড়া দিয়েছেন। সেই সংলাপো আমরা অংশ নিয়েছি। সংলাপের মূল বিষয় ছিলো, একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন চাই। এটা মানতে হবে। এখন সরকারের মোয়াদ শেষ৷ তাই এই সরকার থাকবে না। তোমার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। তুমি এবার যাও। ড. কামাল হোসেন সংবিধানের ভেতরে থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে বক্তব্য দিয়েছেন। যারা সংলাপে বসেছিলো তারা ড. কামালের বক্তব্যের মানেই বুঝেনি৷ তারা সমাধান করতে চায় না। তারা ক্ষমতায় থকতে চায়। সংলাপ তারা চায় না। মানুষ যখন জেগে উঠেছে জাগ্রত মানুষকে থামিয়ে দেয়ার জন্য ঠাণ্ডা পানি ঢেলে দিয়েছে৷

মান্না আরো বলেন, আমরা মূল বিষয়ে কথা বলেছি সংলাপো৷ গণভবনের ভেতরে কোনো মিডিয়া ছিলো না৷ তাহলে কিভাবে ওখান থেকে ছবি বের হয়েছে?তখন ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন কি হয়েছে? কোথায় গেলো? উত্তর দেন।

সরকারকে মান্না বলেন, ‘মিথ্যাবাদী, ভন্ড, প্রতারক সরকার’। আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাব।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ঐক্যফ্রন্টের প্রধান, গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। সভাপতিত্ব করছেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি কাদের সিদ্দিকী।

বক্তব্য রাখবেন গণফোরামের মহাসচিব মোস্তফা মহসীন মন্টু, জেএসডির৷ সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, নাগরিক ডা. জাফর উল্লাহ চৌধুরী, কলামিস্ট আবুল মকসুদ, সুলতান মোহাম্মদ মনসুর।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ