প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খালেদা জিয়ার মামলা দ্রুত নিস্পত্তি জনমনে আশঙ্কা তৈরী করেছে : বজলুর রশীদ ফিরোজ

রফিক আহমেদ : বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের- বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা বজলুর রশীদ ফিরোজ বলেছেন, দীর্ঘদিন পরে হলেও বিরোধীদের দাবির মুখে সংলাপে সরকার রাজি হয়েছে। সেই সংলাপে বেগম খালেদা জিয়ার দুনীতির মামলার রায় প্রভাব ফেলতে পারে কিনা-তাও উড়িয়ে দেয়া যায় না। শনিবার রাজধানীর তোপখানা রোডস্থ দলের কেন্দ্রীয় কার্যালায়ে একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেন।
বজলুর রশীদ ফিরোজ বলেন, সংলাপের মাধ্যমে রাজনৈতিক সংকটের সুষ্ঠু সমাধানে সরকারের আন্তরিকতাকেও প্রশ্নবিদ্ধ করতে পারে খালেদা জিয়ার মামলার রায়। ফলে আমরা মনে করি প্রতিটি নাগরিকেরই ন্যায় বিচার পাওয়ার অধিকার রয়েছে। খালেদা জিয়াও তার ব্যতিক্রম নয়।

তিনি বলেন, যারা ক্ষমতায় থাকে ও যারা ক্ষমতার বাইরে থাকে তারা এক পক্ষ আরেক পক্ষকে ঘায়েল করার জন্য নানা উদ্যোগ আয়োজন করে থাকে। এই গোষ্ঠী রাজপথে মাঠে বক্তৃতা-বিবৃতি এবং আইনের আশ্রয়ে মামলা হামলার মাধ্যমে যখন ক্ষমতায় থাকে, ক্ষতাসীনরা তাদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা যেমন প্রত্যাহার করে নেয়, অন্যদিকে প্রতিপক্ষের মামলাগুলোতে হয়রানি করতে থাকে। এ ধরণের নজীর যখন জনগণের সামনে রয়েছে এবং বিচার বিভাগ যেখানে স্বাধীন নয়, নির্বাহী বিভাগের কর্তৃত্বে পরিচালিত হয়- তখন ন্যায় বিচার নিয়ে জনমনে সন্দেহ এবং অবিশ^াস সৃষ্টি হয়।

তিনি আরো বলেন, একদিকে বহু দুর্নীতি, খুনের মামলা ও ধর্ষণের মামলা বছরের পর বছর বিচার না হয়ে পড়ে থাকে। অপরদিকে, কোন কোন মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি হয়- তা দেখে জনগণের মনে আশঙ্কা থাকাটা অস্বাভাবিক নয়, রাজনৈতিক কারণে মামলাগুলো এত দ্রুত নিস্পত্তি হচ্ছে কিনা, এ বিষয়টি নিয়ে দেশবাসী মনে নানা সন্দেহের সৃষ্টি হয়। সেই প্রেক্ষিতে বেগম খালেদা জিয়ার দুনীতির মামলার রাযের ব্যাপারে আদালত এবং বিচারিক আইনজীবীগণই ভাল বলতে পারবেন। এ ক্ষেত্রেও দেখা গেছে, স্বৈরাচার এরশাদের মামলা যেখানে প্রায় তিন যুগ ধরে নিষ্পত্তির অপেক্ষায় ঝুলে আছে, সেখানে খালেদা জিয়ার মামলা এত দ্রুত নিষ্পত্তি হতে দেখে জনমনে আশঙ্কা তৈরি হওয়াটা অস্বাভাবিক নয়।
সম্পাদনা-মাহবুব আলম

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ