Skip to main content

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সংলাপ শেষ না হওয়া পর্যন্ত তফসিল না দিতে ইসিকে ড. কামালের চিঠি

সাইদ রিপন: রাজনৈতি দলগুলোর সাথে প্রধানমন্ত্রীর চলমান সংলাপ শেষ না হওয়া পর্যন্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা না করতে প্রধান নির্বাচনকে (সিইসি) চিঠি দিয়েছে ড. কামাল হোসেন নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। শনিবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ঐক্যফ্রন্টের প্রধান নেতা কামাল হোসেন স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত চিঠি ইসিতে পৌঁছে দেন গণফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক (প্রশিক্ষণ) রফিকুল ইসলাম পথিক। ওই সময় সিইসির সভাপতিত্বে ইসির ৩৮তম কমিশন সভা চলছিলো। এদিকে তফসিলের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে রোববার কমিশনের নির্ধারিত সভা রয়েছে। সংবিধান অনুযায়ী আগামী ২৮ জানুয়ারির মধ্যে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে। গত ৩০ অক্টোবর থেকে নির্বাচনকালীন ক্ষণ-গণনা শুরু হয়েছে। সিইসিকে দেয়া চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, আপনারা প্রধানমন্ত্রীর সংলাপের বিষয়টি অবগত আছেন এবং সেদিকে নজর রাখছেন। তাছাড়া আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক জানিয়েছেন, ৮ নভেম্বরের পরে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাথে প্রধানমন্ত্রীর আবারো সংলাপের বিষয়টি বিবেচনায় রয়েছে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট প্রধানমন্ত্রীর সাথে আবারো সংলাপে বসার ব্যাপারে ইচ্ছুক। এই প্রেক্ষাপটে আমরা মনে করি যে তফসিল ঘোষণার ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত নেওয়ার বিষয়টি রাজনৈতিক প্রক্রিয়া। বিশেষ করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সংলাপ শেষ না হওয়া পর্যন্ত ইসির অপেক্ষা করাই শ্রেয়। সংলাপ শেষ হওয়ার পর তফসিল ঘোষণার তারিখ নির্ধারণে কামাল চিঠিতে আরও বলেন, তফসিল ঘোষণার দিনক্ষণ নির্ধারণে আপনাদের এমন অপেক্ষা রাজনৈতিক দল ও জনগণের মধ্যে ইসির প্রতি আস্থা বাড়ানোর ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। ইসির একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার প্রস্তুতির মধ্যে অপ্রত্যাশিতভাবে সংলাপের আহ্বানে সাড়া দিয়ে প্রথমে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে গণভবনে গত বৃহস্পতিবার আলোচনায় বসেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উল্লেখ্য, গত ১৩ অক্টোবর জাতীয় প্রেসক্লাবে আনুষ্ঠানিকভাবে আত্মপ্রকাশ করে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। বিএনপিও এই জোটে রয়েছে। কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন এই জোট সরকারের কাছে সাত দফা ও ১২টি লক্ষ্য উপস্থাপন করেছে। সম্পাদনা: হুমায়ূন কবির খোকন