প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

এক মিনিটে সংবিধান সংশোধন হয় না: শ ম রেজাউল করিম

মো: মারুফুল আলম: বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট সিনিয়র আইনজীবী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, এক মিনিটে সংবিধান সংশোধন হয় না, এক মিনিটে সংবিধান স্থগিত করা যায়। অসাংবিধানিক উপায়ে যারা ক্ষমতায় আসে তারা বলেন, ‘প্রিয় দেশবাসী আসসালামু আলাইকুম, সংবিধানের কার্যকারিতা স্থগিত করা হলো”। এভাবে এক মিনিটে যা করা যায় তা হলো সংবিধান স্থগিতকরণ, সংবিধান সংশোধন করতে গেলে কয়টা করা যাবে, মৌলিক স্ট্রাকচারের সঙ্গে কতটা সামাঞ্জস্যপূর্ণ এ বিষয়ে বিশদ আলাপ-আলোচনা ও ব্যাটিং করতে হয়, সমস্ত পর্যালোচনার পর সংবিধান সংশোধন করতে হয়। গতকাল চ্যানেল আই টকশো’তে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বিরোধী দলকে সভা-সমাবেশ করতে দিতে হবে, মিছিল-মিটিং করতে দিতে হবে, এলাকায় যেতে দিতে হবে, তাদের দলীয় কর্মীদের কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাবার সুযোগ দিতে হবে- এ ব্যাপারে আমি সম্পূর্ণ একমত। সরকারি দলের একজন কর্মী হিসেবে আমিও সরকারের কাছে আহবান জানাবো, বিরোধীদল যেন কোনভাবে বাধাগ্রস্থ না হন। প্রধানমন্ত্রী বারবার বলেছেন, “সকলের অংশগ্রহণপূর্বক নির্বাচন চাই”। আমি পরিপূর্ণভাবে একমত যে, রাজনৈতিক হয়রানিমূলক কোন মামলা বা গ্রেফতার করাও উচিত হবে না। তবে ইন্ডিভিজুয়াল ক্রিমিনাল লায়াবিলিটিজ থাকলে ভিন্নকথা।

তিনি আরও বলেন, একটা সময়ে ছিলো রাজনৈতিক নেতা হলে ধরাছোঁয়ার বাইরে, টাকার মালিক হলে ধরাছোঁয়ার বাইরে, লয়ার হলে ধরাছোঁয়ার বাইরে, সাংবাদিক হলে ধরাছোঁয়ার বাইরে; এটাতো আইন না। বঙ্গবন্ধুর খুনীদের অব্যহতি দেওয়া হয়েছিল। অপারেশন ক্লিনহার্ট এ যারা জড়িত, তাদের বিচার করা যাবে না; দায়মুক্তি অধ্যাদেশ ২০০৬ দেওয়া হয়েছিলো। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মনে করেন, নো বডি ইজ এভাব দি ল’। সেজন্য বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচার হয়েছে, মানবতাবিরোধীদের বিচার হয়েছে।

বেগম খালেদা জিয়ার সাজা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, খালেদা জিয়া দণ্ডপ্রাপ্ত হওয়ার কারণে আমি রাজনৈতিক কর্মী হিসেবে ব্যক্তিগতভাবে খুশি না, আমি খুশি এজন্য যে, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। আইনানুগ প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে খালেদা জিয়ার সাজা হয়েছে। এটাতো এমন না যে, দ্রুত গতিতে যেনতেনভাবে একটা দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে বা মার্শাল ল’ ট্রাইব্যুনালে বিচার হয়েছে! আদালতের বিচারে অনেক বছর সময় পাবার পরও তাদের নামজাদা আইনজীবীরা প্রমাণ করতে পারেননি যে, খালেদা জিয়া নির্দোষ। এমনকি তাদের লয়াররা বাইরে একটি স্টেটমেন্ট দিয়ে বলেছেন, আইনানুগ প্রক্রিয়ায় বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা সম্ভ না। অর্থাৎ তারা বুঝেছেন, মামলার মেরিট যা, তাতে আইনানুগভাবে তাকে মুক্ত করা সম্ভব না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ