প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শুধু সংবিধানসম্মত বক্তব্যে সমঝোতা হয় না: বকুল

মো. মারুফুল আলম: সাবেক সংসদ সদস্য সর্দার সাখাওয়াত হোসেন বকুল বলেছেন, জাতির বৃহত্তর স্বার্থে অনেক সময় সংবিধান সংশোধন করার দরকার হয়। ১৯৯১ সালে শাহাবুদ্দিন আহমদকে বিচারপতি থেকে প্রেসিডেন্ট করা হয়েছিল সংবিধান ক্লোজ করে। ১৯৯৬ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠন করা হয়েছিলো জাতীর বৃহত্তর স্বার্থে; এটার একটাও কিন্তু সংবিধানে ছিলো না। জাতিকে বাঁচানোর তাগিদে স্বাধীনতার জন্য সংবিধান ভঙ্গ করেই আমরা পাকিস্তানের সাথে যুদ্ধ করেছিলাম। শুধু সংবিধানসম্মত বা আইনসম্মত বক্তব্যে সমঝোতা আসে না। গতকাল শুক্রবার চ্যানেল আই টকশো’তে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, আজকে আমরা ভোট দিতে পারি না, মিটিং মিছিল করতে পারি না অথচ প্রধানমন্ত্রী সংসদে দাঁড়িয়ে ভোট চাচ্ছেন আর আওয়ামী লীগের লোকজন মোটর শোভাযাত্রা করে ভোট চাচ্ছেন। এদিকে আমরা কথা বলতে পারি না, দূর্ঘাপুজার কাঠাম দেখতে যাবো সেখানে আমাদের গ্রেফতার করা হয়, বাড়ীর দেয়ালের ভেতর কর্মীসভা করতে পারি না, আজকে গায়েবী মামলায় আসামি আমাদের কয়েকহাজার লোক, মৃতব্যক্তির নামে মামলা, বিদেশে অবস্থানরত ব্যক্তির নামে মামলা, জেলের ভেতর আছে এমন আসামির নামে মামলা। শুধু সংলাপের ব্যাপারে যদি সংবিধানসম্মত বা আইনসংগত কথাগুলো বলা হয় তাহলে কম্প্রোমাইজে আসা যাবে না।

আওয়ামী লীগের অনেক নেতৃবৃন্দ বলেছিলেন- কোন সংলাপই হবে না কিন্তু প্রধানমন্ত্রী সংলাপের ব্যবস্থা করেছেন তাই প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ দিয়ে তিনি বলেন, একদিকে সংলাপ ডাকা হলো অন্যদিকে কেন তিনবারের প্রধানমন্ত্রী বয়োবৃদ্ধ মহিলা বেগম খালেদা জিয়াকে ফরমায়েশি সাজা দেয়া হলো। এই জাতিকে বাঁচাতে হলে সংলাপে সমঝোতা আসতে হবে, প্লাস মাইনাস করে একটি সুষ্ঠু ও সুন্দর নির্বাচনের লক্ষ্যে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড এর ব্যবস্থা করতে হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ