প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দেউলিয়া অর্থনীতিকে বাঁচাতে চীনের দ্বারস্থ ইমরান

এ.আর.ফারুকী : পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ৫ দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে চীনে গিয়েছেন। ইমরানের এই সফরের উদ্দেশ্য পাকিস্তানের ডুবন্ত অর্থনীতি উদ্ধারে চীনের বিশেষ সহায়তা আদায়। এমন একটা সময়ে এই সফর,যখন সারাদেশ আসিয়া বিবির ধর্ম অবমাননা অভিযোগ ইস্যুতে উত্তাল। ইমরান খান আগস্টে যখন প্রধানমন্ত্রী¡র দায়িত্ব গ্রহন করেন তখন অর্থনীতি প্রায় দেউলিয়া।

ভুল ব্যবস্থাপনা এবং দূর্নীতির কারনে পাকিস্তান দেনার দায়ে জর্জরিত। পাকিস্তানের বৈদশিক ঋণ প্রায় ১০০ বিলিয়ন ডলার। কেবল চীনের কাছেই দেনা ১৯ বিলিয়ন ডলার। এই দেনা মূলত চীন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডর প্রকল্পের কারনে। দেশের অভ্যন্তরীন অর্থনীতিতে ঘাটতির পরিমান প্রায় ১৬ বিলিয়ন ডলার। বৈদশিক মুদ্রার রিজার্ভ কমে দাঁড়িয়েছে ১০ বিলিয়ন ডলারের নিচে। পাকিস্তানী রুপীর অবমূল্যায়ন হয়েছে ২৫ শতাংশেরও বেশি। রাষ্ট্রায়ত্ত করপোরেশনগুলো ধুকছে চরমভাবে। পাকিস্তানের একসময়ের গর্ব পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স ৩৬০ বিলিয়ন রুপীর দেনায় নিমজ্জিত। বৈদশিক ঋণের সুদ পরিশোধের চাপ পরিস্থিতিকে দিনকে দিন খারাপ করে তুলছে। যদি পরিস্থতির উত্তরণ না হয় তবে কঠিন শর্তে আইএমএফের দ্বারস্থ হওয়া ছাড়া কোন উপায় থাকবে না।

ইমরান তার নির্বাচনী প্রচারণায় বৈদশিক সাহায্য আনার কথা বলেছিলেন। কিন্তু এতদিনে কেবল সৌদি আরব থেকে মাত্র ৬ বিলিয়ন ডলার সহায়তা আনতে পেরেছেন। ধারনা করা হচ্ছে, ইমরান এযাত্রায় চীনের কাছ থেকে পাকিস্তানের অর্থনীতিকে সহায়তা দানকারী একটা প্যাকেজ পেয়েই যাবেন। ইয়ন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ