প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শীতে দাম কমেছে সবজির
১শ’ টাকার শিম বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকায়

মাসুদ মিয়া : রাজধানীতে অধিকাংশ শীতের সবজির দাম কমেছে। তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি কমেছে শিমের দাম। তিন মাসের বেশি সময় ধরে রাজধানীর বাজারগুলোতে ১শ’ টাকার ওপরে কেজিতে বিক্রি হওয়া শিমের দাম কমে এখন ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

পাইকারি বাজারে এটি বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকা থেকে ৪০ টাকা। ফলে দীর্ঘদিন ধরে বাজারের সব থেকে দামি সবজির তালিকায় থাকা শিম এখন সব থেকে সস্তার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে।

শুক্রবার রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে এমন তথ্য জানা গেছে। ব্যবসায়ীরা বলছেন, বাজারে শীতের সবজি ভরপুর থাকায় দাম কমছে।

কারওয়ান বাজারে দেখা যায়, ব্যবসায়ীরা এক পাল্লা (৫ কেজি) শিম বিক্রি করছেন ১৫০ টাকা। প্রতিকেজি শিমের দাম পড়ছে ৩০ টাকা। শান্তিনগর বাজারে এক প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০-৫০ টাকায়। শিমের দামের বিষয়ে কারওয়ান বাজারের ব্যবসায়ী কাশেম বলেন, এখন শীতেরসব সবজিই বাজারে ভরপুর। ফলে শুধু শিম নয় সব ধরনের সবজির দাম কমেছে।

সামনে হরতাল-অবরোধ বা ঝড়-বৃষ্টি না হলে দাম আরও কমবে। এখন যে শিমের পাল্লা ১২০ টাকা থেকে ১৫০ টাকা। এদিকে বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বাজারে দামি সবজির তালিকায় থাকা টমেটোর দাম সপ্তাহের ব্যবধানে কিছুটা কমলেও অপরিবর্তিত রয়েছে গাজরের দাম।

বাজারভেদে টমেটো বিক্রি হচ্ছে ৬০-৮০ টাকা কেজি। আর গাজর বিক্রি হচ্ছে ৭০-৯০ টাকা কেজি। দাম কমার তালিকায় রয়েছে- শীতের অন্যতম আগাম সবজি ফুলকপি ও পাতাকপি। বাজার ও মানভেদে ফুলকপির পিচ বিক্রি হচ্ছে ২০-৪০ টাকা, যা গত সপ্তাহে ছিল ৩০-৫০ টাকা।

গত সপ্তাহে ৫০ টাকা পিচ বিক্রি হওয়া পাতাকপির দাম কমে ৩০ টাকায় নেমে এসেছে। বিভিন্ন বাজারে ৩০-৪০ টাকা কেজির মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে পটল, ঢেঁড়স, বেগুন, করলা, চিচিংগা, ঝিঙা ও ধুন্দল। এক সপ্তাহ আগেও কিছু কিছু বাজারে এসব

সবজির কেজি ৬০ টাকা ছিল। সবজির পাশাপাশি কিছুটা দাম কমেছে পেঁয়াজ রসুনও কাঁচামরিচের। বাজার ও মানভেদে এক পোয়া কাঁচামরিচ বিক্রি হচ্ছে ১০-২০ টাকা। গত সপ্তাহে যেখানে কোনো বাজারেই ১৫টাকার নিচে এক পোয়া কাঁচামরিচ বিক্রি হয়নি।

প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৩৮ টাকা থেকে ৪০ টাকা। আমদানি করা ভারতীয় পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২৫-২৮ টাকা কেজি। বয়লার মুরগির কেজি বিক্রি হচ্ছে ১২০-১৩০ টাকা কেজি। গরুর মাংস ৪৮০-৫০০ টাকা এবং খাসির মাংস ৬৫০-৭০০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। মাছ বাজার ঘুরে দেখা গেছে, প্রতিটি বাজারেই ইলিশ মাছ ভরপুর।

৬০০-৮০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ মাছের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৫৫০-৭০০ টাকা। আর পিস বিক্রি হচ্ছে ৪৫০-৫০০ টাকায়। এক কেজি সাইজের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৮০০-১০০০ টাকা পিস। আর ছোট আকারের ইলিশের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০০-৫০০ টাকা।

বাজারে ইলিশের প্রতি ক্রেতাদের আগ্রহ বেশি থাকলেও এর প্রভাবে সপ্তাহের ব্যবধানে অন্য মাছের দাম কমেনি। আগের সপ্তাহের মতোই রুই মাছ বাজার ভেদে বিক্রি হচ্ছে ২৫০-৪০০ টাকা কেজি। পাবদা মাছ বিক্রি হচ্ছে ৪০০-৫০০ টাকা কেজি। শিং মাছ ৩০০-৫০০ টাকা, তেলাপিয়া ১২০-১৫০ টাকা, পাঙাস ১২০-১৫০ টাকা,সরপুটি ১৫০-২০০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত