প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খাসোগজি অত্যন্ত বিপজ্জনক ইসলামপন্থী ছিলেন : সৌদি ক্রাউন প্রিন্স

সান্দ্রা নন্দিনী : সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান বলেছেন, তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটে নিহত ভিন্নমতাবলম্বী সাংবাদিক জামাল খাসোগজি একজন অত্যন্ত বিপজ্জনক ইসলামপন্থী ছিলেন। ওয়াশিংটন পোস্ট ও নিউইয়র্ক টাইমস এই তথ্য নিশ্চিত করেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সৌদি আরবের পক্ষ থেকে খাসোগজি হত্যার কথা স্বীকার করার আগে গত ৯ অক্টোবর হোয়াইট হাউজে এক ফোনালাপে এই কথা বলেছিলেন সৌদি যুবরাজ। অবশ্য, দু’টি সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনের তথ্য প্রত্যাখ্যান করেছে সৌদি আরব।

ওয়াশিংটন পোস্ট তাদের প্রতিবেদনে জানায়, ফোনালাপটি সৌদি যুবরাজের সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা ও জামাতা জেরাড কুশনার এবং জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টনের মধ্যে হয়েছিলো। সেসময় সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বলেন, খাসোগজি বহুজাতিক ইসলামি সংগঠন মুসলিম ব্রাহারহুডের সদস্য ছিলেন।

গত ২ অক্টোবর তুরস্কের সৌদি কনস্যুলেটে নিজের বিয়ের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহে গিয়ে নিখোঁজ হন সৌদি শাসকশ্রেণীর সমালোচনাকারী সাংবাদিক খাসোগজি। তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করে তুরস্ক। সৌদি আরব প্রথম দিকে খাসোগজিকে হত্যার অভিযোগ উড়িয়ে দিলেও ১৭ দিন পর স্বীকার করে, কনস্যুলেটের ভেতরেই তাকে হত্যা করা হয়েছে। পরবর্তীতে, আন্তর্জাতিক চাপের মুখে খাসোগজি হত্যাকান্ডে  জড়িত সন্দেহে ১৮ জনকে গ্রেফতার ও ৫ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে বলেও জানিয়েছে সৌদি বার্তা সংস্থা। অন্যদিকে, খাসোগজি হত্যাকান্ডের সব তথ্য উন্মোচনে সৌদি আরবের প্রতি আহ্বান জানান ট্রাম্প।

খাসোগজির হত্যায় সৌদি যুবরাজের সম্পৃক্ততা রয়েছে বলে অভিযোগ উঠলেও তা নাকচ করে এসছে সৌদি আরব। এর পাশাপাশি, খাসোগজি হত্যার আসল সত্য উন্মোচন করার কথাও জানায় দেশটি। গতমাসে সৌদি যুবরাজ বলেছিলেন, ‘খাসোগজির হত্যাকান্ড সৌদির সকল নাগরিকের জন্য একটি অত্যন্ত বেদনাদায়ক অপরাধ।’ বিবিসি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ