প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আড়াইাহাজারে শ্বাসরোধে গৃবধূকে হত্যা, স্বামী পলাতক

এম এ হাকিম ভূঁইয়া, আড়াইাাজার : নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে লিপি আক্তার (৩৫) নামে এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিহতের পরিবারের দাবি হাত-পা বেঁধে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। এখন আত্মহত্যা করেছে বলে চালিয়ে দেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী রফিকুল ইসলাম ওরফে লালসহ তার পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছেন।

বৃহম্পতিবার রাতে স্থানীয় চৈতনকান্দা পূর্বপাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। শুক্রবার সকালে খবর পেয়ে স্থানীয় গোপালদী তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করেছে। পুলিশের দাবী পারিবারিক কলহের জের ধরে সে আত্মহত্যা করেছে।

নিহতের ভাই শাহলম মিয়া জানান, প্রায় ১৫ বছর আগে নরসিংদী জেলার মাধবদী থানাধীন শিমুলের এলাকার আবুল কাসেমের মেয়ের সঙ্গে আড়াইহাজারের চৈতনকান্দা পূর্বপাড়া এলাকার মৃত সামছুল হকের ছেলে রফিকুলের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে তাদের দাম্পত্য জীবন বেশ সুখেই কাটছিল। এরই মধ্যে রাকিব (১২) ও শাকিব (৯) নামে তাদের সংসারে সন্তানে জম্ম হয়। তবে এরই এক বছর আগে গোপনে রফিকুল নারায়ণঞ্জের সোনারগাও এলাকায় দ্বিতীয় বিয়ে করেন।

তিনি আরও জানান, লিপি দ্বিতীয় বিয়ে কিছুতেই মেনে নিতে পারছিল না। এ নিয়ে তাদের সংসারে প্রায় ঝগড়াঝাটি হত। পরে তাকে রফিকুল তাকে যৌতুক দিতে অব্যাহত চাপ দিতে থাকেন। তাতে রাজী না হওয়ায় বিভিন্ন সময় তাকে মারধড়ও করা হত। এরই জের ধরে বৃহম্পতিবার রাতের যে কোন সময় হাত-পা বেঁধে শ্বাসরোধে হত্যা করে তার শোবার ঘরের মেঝেতে ফেলে রাখে। এর আগেও লিপিকে হত্যার চেষ্টা করে সে।

এদিকে লাশের সূরতালকারী গোপালদী তদন্ত কেন্দ্রের ইনর্চাজ ফরিদ জানান, নিহতের গলায় আঘাতের চিহৃ রয়েছে। প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে সে হত্যা করে থাকতে পারেন। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ নির্ণয় করা সম্ভব হবে। এ ঘটনায একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ