প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ইসিকে বিতর্ক এড়িয়ে চলার পরামর্শ রাষ্ট্রপতির

সমকাল : নির্বাচন কমিশন পরিচালনায় যে কোনো ধরনের বিতর্ক এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। একই সঙ্গে তিনি নির্বাচনের কাজে প্রযুক্তির ব্যবহারে সতর্ক থাকার কথা জানিয়ে বলেছেন, এর ব্যাপকতার কারণে অপব্যবহারের যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে. এম. নুরুল হুদার নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের কমিশন সদস্যরা বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎকালে তিনি এসব কথা বলেন। রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন এ কথা জানিয়েছেন। এদিকে একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগে কমিশনের প্রস্তুতি সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করার রেওয়াজের অংশ হিসেবে ইসি সদস্যরা এই সাক্ষাতে অংশ নেন বলে জানিয়েছেন সিইসি কে. এম. নুরুল হুদা। বঙ্গভবন থেকে বেরিয়ে অপেক্ষমাণ সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা জানান।

এ সময় তিনি আরও বলেন, আগামী ৪ নভেম্বর কমিশন সভায় একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিলের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে ওই দিন তফসিল ঘোষণা না-ও হতে পারে। জাতির উদ্দেশে দেওয়া সিইসির ভাষণের দিনেই তফসিল ঘোষণা করা হবে বলে জানান সিইসি। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে সিইসির নেতৃত্বে অন্য চার কমিশনার মাহবুব তালুকদার, রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম, শাহাদাত হোসেন চৌধুরী এবং ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এ সাক্ষাতে অংশ নেন। বিকেল সোয়া ৪টা থেকে ৫টা পর্যন্ত এ সাক্ষাৎ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় কমিশনের পক্ষ থেকে একাদশ সংসদ নির্বাচনের সার্বিক প্রস্তুতি সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করা হয়। এতে সংসদীয় আসনের সীমানা পুনর্নির্ধারণ, নির্বাচনী এলাকাভিত্তিক ছবিসহ ভোটার তালিকার সিডি প্রস্তুত করাসহ বিভিন্ন বিষয়ে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করা হয়। রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জয়নাল আবেদীন জানান, এ সময় নির্বাচন কমিশনের কার্যক্রমে যে কোনো বিতর্ক এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেন রাষ্ট্রপতি। পাশাপাশি আসন্ন একাদশ সংসদ নির্বাচন যাতে সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন হয়, সে ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনকে আন্তরিক প্রয়াস অব্যাহত রাখার পরামর্শ দেন তিনি। রাষ্ট্রপতি বলেন, প্রযুক্তির ব্যাপকতার ফলে এর অপব্যবহারের যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। তাই প্রযুক্তির অপব্যবহার সম্পর্কে ইসিকে সজাগ থাকার নির্দেশনাও দেন তিনি। রাষ্ট্রপতি আশা প্রকাশ করেন, নির্বাচন কমিশনের সার্বিক প্রচেষ্টা ও সংশ্নিষ্ট সবার সহযোগিতায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হবে।

সিইসির ব্রিফিং : বঙ্গভবন থেকে বেরিয়ে সিইসি নুরুল হুদা সাংবাদিকদের বলেন, জাতীয় পর্যায়ে একটা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তার প্রস্তুতি সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করা হয়েছে।

ইসি কী করেছে, প্রস্তুতি কতদূর, ভোটার তালিকা হলো কি-না, কেন্দ্র কতগুলো হবে- এ জাতীয় কিছু বিষয় তাকে অবহিত করার রেওয়াজ রয়েছে। প্রত্যেক জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগেই রাষ্ট্রপতিকে এসব বিষয়ে অবহিত করা হয়। তারই অংশ হিসেবে এই সাক্ষাৎ। এখানে সিদ্ধান্ত দেওয়া বা নেওয়ার কোনো বিষয় নেই।

এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, তফসিল নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি। ৪ নভেম্বর কমিশন সভা হবে। ওই দিন কমিশন সভায় সিদ্ধান্ত হবে। তিনি জানান, ৩ নভেম্বরেও কমিশন সভা আছে; তবে তার ইস্যু অন্য। তফসিল নিয়ে সভা হবে ৪ নভেম্বর।

নির্বাচন ২৭ ডিসেম্বর হতে পারে বলে গুঞ্জন রয়েছে- এ বিষয়ে তার দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে সিইসি বলেন, এটা এখনও ঠিক হয়নি। তফসিল চূড়ান্ত না হলে ভোটের তারিখ ঠিক হওয়ার সুযোগ নেই। রাষ্ট্রপতিকে ২৭ ডিসেম্বর সম্ভাব্য তারিখ জানানো হয়েছে- এমন গুঞ্জন নাকচ করে দিয়ে সিইসি বলেন, এটা সঠিক নয়। রাষ্ট্রপতি এ বিষয়ে কিছু জিজ্ঞাসাও করেননি।

বিএনপির সংশোধিত গঠনতন্ত্র গ্রহণ না করতে উচ্চ আদালতের আদেশ সম্পর্কে কমিশনের অবস্থান জানতে চাইলে সিইসি বলেন, আদালতের আদেশ পাওয়া গেছে, পাশাপাশি রিট আবেদনকারীর আবেদনও পাওয়া গেছে। কমিশন সভায় আলোচনার পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

রাজনৈতিক জোট ও দলের মধ্যে চলমান সংলাপ শেষের আগেই তফসিল দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে কি-না জানতে চাইলে সিইসি বলেন, এ বিষয়ে কমিশনে এখনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। চলমান সংলাপের ওপর কমিশন অত্যন্ত শ্রদ্ধাশীল জানিয়ে তিনি বলেন, ৪ নভেম্বরের কমিশন সভার আগে কোনো মন্তব্য করা যাবে না।

সংলাপের পরিপ্রেক্ষিতে নির্বাচন নিয়ে কমিশনের নতুন কোনো পরিকল্পনা রয়েছে কি-না- এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, না, সংবিধানে যেভাবে আছে সেভাবেই নির্বাচন আয়োজনের প্রস্তুতি নেওয়া হবে। তিনি জানান, নির্বাচন কমিশনের প্রস্তুতিতে রাষ্ট্রপতি সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী নির্বাচন ডিসেম্বরের মধ্যে হবে কি-না- এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, এটা এখনই বলার সুযোগ নেই। যদিও ইসি নির্বাচনের জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত। সব দল নির্বাচনে অংশ নেওয়ার মতো আস্থার পরিবেশ কমিশন তৈরি করতে পারছে কি-না- এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, কমিশনের আস্থা রয়েছে সব দল ভোটে অংশ নেবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ