প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করতে দেয়া হবে না : বি. চৌধুরী

মো.ইউসুফ আলী বাচ্চু: বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেছেন, নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করতে দেওয়া হবে না। কমিশনকে নিরপেক্ষ কাজ করতে হবে। নির্বাচন পর্যবেক্ষক আনতে হলে তাদের একমাস আগেই আসার সুযোগ দিতে হবে। যেকোনও কেন্দ্র পরিদর্শন করার সুযোগ দিতে হবে।বৃহস্পতিবার বৃহস্পিতিবার বিকালে রমনার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে ‘যুক্তফ্রন্ট স¤প্রসারণ ও বিকল্পধারা বাংলাদেশে যোগদান’ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

বি-চৌধুরী বলেন, সংসদ সদস্য হিসেবে কারও কোনও ক্ষমতা থাকতে পারে না। নির্বাচনের সময় ম্যাজিস্ট্রেসি ক্ষমতাসহ সেনাবাহিনীকে নিয়োগ দিতে হবে। আমাদের সেনাবাহিনী সারা বিশ্বে শান্তি রক্ষা করছে। দেশের শান্তির জন্য কেন কাজ করবে না? সামরিক বাহিনীর কোনও বিকল্প নেই।
সংলাপ ছাড়া চলমান সংকটের সমাধান হবে না বলে মন্তব্য করে বি- চৌধুরী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী সংলাপের জন্য আমাদের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। এটা বিকল্পধারার বড় বিজয়। ‘তারা (ক্ষমতাসীনরা) বলেছিলেন সংলাপ করবেন না। আমরা বলেছিলাম করতে হবে। আমরা দেশের স্বার্থ, মানুষের কথা মাথায় রেখে কথা বলবো। আমরা জনগণের কাছে পৌঁছে যেতে চাই।’

সংলাপের আলোচনা প্রসঙ্গে সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, নির্বাচনের সময় সমাবেশ করতে দিতে হবে। সমাবেশ করার ক্ষেত্রে কোনও বিধিনিষেধ থাকতে পারে না। গণগ্রেফতার বন্ধ করতে হবে। আটককৃতদের মুক্ত করে দিতে হবে। সরকারি চাকরিজীবীদের বড় অংশ আওয়ামী লীগের দলীয় এজেন্টে পরিণত হয়েছে, তাদের নির্বাচনের কাজে যুক্ত করা যাবে না। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিন। সংসদ ভেঙে দিন।

সরকারের সমালোচনা করে বি-চৌধুরী বলেন, ‘সরকার উন্নয়নের বাহাদুরি করছে। উন্নয়ন ও গণতন্ত্র একসঙ্গে চলতে হবে। যে উন্নয়ন হয়েছে, তাতে ৫০ শতাংশ দুর্নীতি হয়েছে। ডিজিটাল আইন করা হয়েছে, যা সাংবাদিকদের মুখ বেঁধে দেওয়া হয়েছে। এ আইন বাতিল করতে হবে।’

অনুষ্ঠানে বিকল্পধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান বলেন, ‘আমরা সংলাপে যাবো। সেখানে আমরা অবশ্যই খাবো। আমরা ডাল-ভাত খেতে যাবো। ১৭ রকম খাবার খাবো না। ডাল, ভাত, মাছ খাবো। লাল রুটি খাবো।’

অনুষ্ঠানে যুক্তফ্রন্টে যুক্ত হওয়া ৬টি দল হচ্ছে, বাংলাদেশ লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি, জাতীয় জনতা পার্টি, বাংলাদেশ লেবার পার্টি, বাংলাদেশ মাইনোরিটি ইউনাইটেড ফ্রন্ট। এছাড়া বিকল্পধারায় যোগ দিয়েছেন, জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) নেতা মো. গোলাম রেজা, গণফ্রন্ট নেতা কামাল পাশা, মুসলিম লীগ নেতা নূর এ আলম, জনদল নেতা জয় চৌধুরী ও খলিল চৌধুরী।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ