প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

এশিয় মুদ্রাগুলির দরবৃদ্ধি, আগস্টের চীনা ইউয়ানের সর্বোচ্চ দর

নূর মাজিদ, রাশিদ রিয়াজ : আন্তঃব্যাংক লেনদেনে আন্তর্জাতিক বাজারে গত দুই সপ্তাহে এশিয়া মহাদেশের বৃহৎ অর্থনৈতিক শক্তিগুলোর মুদ্রা কিছুটা শক্তিশালী হয়ে উঠেছে। এই বিষয়ে পরিচালিত এক তথ্য জরিপ শেষে রয়টার্স পোল গত বৃহ¯পতিবার এমন কথা জানায়। রয়টার্স পোল জানায়, চীন-যুক্তরাষ্ট্র বাণিজ্য যুদ্ধের মাঝেই এশিয় মুদ্রাগুলো এমন শক্তিশালী অবস্থান অর্জন করেছে। সকল চীনা রপ্তানি পণ্যে মার্কিন শুল্কারোপের সম্ভাবনায় বিনিয়োগকারীরা ঝুঁকিপূর্ণ ইউয়ানের বিপরীতে ডলারে অধিক বিনিয়োগ করছেন। তবে চীনা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রনোদনায় দেশটির বাজারে আসা বিদেশী বিনিয়োগ চীনা মুদ্রার তুলনামূলক উচ্চগতির পেছনে ভূমিকা রাখছে। মুদ্রাবাজারের এমন মিথস্কিয়ায় চীনা মুদ্রার দর ডলারের বিপরীতে ধারাবাহিকভাবে ভারসাম্য ধরে রাখতে সমর্থ হয়েছে। আগস্ট মাসের পর এটাই ইউয়ানের সবচেয়ে শক্তিশালী অবস্থান। তবে গতকাল ইউয়ানের দর কিছুটা কমেছে। ডলারের তুলনায় ইউয়ানের মূল্য কমেছে এদিন শূন্য দশমিক ২৮ শতাংশ।

গত বুধবার প্রতি ডলারের বিপরীতে ইউয়ান হাতবদল হয় ৬.৯৬৪৬ যা ছিল গত ১০ বছরে সর্বনি¤œ হার। তার আগের দিন বুধবার ইউয়ানের দর ছিল ডলারের বিপরীতে ৬.৯৫৭৪। অর্থনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন চীন-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে বাণিজ্য সম্ভাবনা যথেষ্ট ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। ২০০৮ সালের ২১ মে ডলারের তুলনায় ইউয়ানের মূল্য ছিল ৬.৯৬। তখন থেকে চীনের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ২০১৫ সালের আগস্ট পর্যন্ত ইউয়ানের দর তিনবার কমায়। পরের বছর ইউয়ানের দর ডলারের তুলনায় আরো তিনবার কমে। চীনের রফতানি বৃদ্ধি করার জন্যেই ডলারের তুলনায় ইউয়ানের মূল্য কমানো হয়। রয়টার্স, ¯পুতনিক

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত