প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

টেস্টে নজর দিতে ওয়ানডে ক্রিকেটকে বিদায় আজহারের

স্পোর্টস ডেস্ক : নামের পাশে ‘টেস্ট স্পেশালিস্ট’ খেতাব জুটেছে বেশ আগেই। আর ক্রিকেটের লংগার ভার্সনে বেশ ভালোই ফর্মে আছেন। তাই সে দিকেই নজর দিতে চাচ্ছেন পাকিস্তান ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক আজহার আলী। টেস্ট ক্যারিয়ার দীর্ঘায়িত করতে একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় বলেছেন আজহার। গতকাল ওয়ানডে ক্রিকেট ছাড়ার ঘোষণা দেন তিনি।

ওয়ানডে ক্রিকেটে দলেও নিয়মিত নন তিনি। পাকিস্তানের হয়ে রঙিন জার্সিতে সর্বশেষ খেলতে নেমেছিলেন এ বছরের জানুয়ারিতে। আর দলের হয়ে উজ্জ্বল পারফর্ম্যান্স করেছিলেন ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে। ভারতকে হারিয়ে শিরোপা জয় করা ফাইনাল ম্যাচে করেছিলেন গুরুত্বপূর্ণ ৫৯ রান এবং সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে করেন ৭৬ রান। তাছাড়া গ্রুপ পর্বে ভারতের বিরুদ্ধে করেছিলেন ৫০ রান। এরপরে একদিনের ক্রিকেটে তার ব্যাট চওড়া না হওয়ায় দলে অনিয়মিত হয়ে পড়েন।

পাকিস্তানের হয়ে কখনোই টি-টোয়েন্টি খেলেননি আজহার। আর খেলতেও চান না শর্ট ফরম্যাটে। ইমাম-উল-হকের কাছেই জায়গা হারাতে হয়েছে আজহারকে। ক্যারিয়ারের প্রথম ১০ ইনিংসে ইমাম-উল-হক তিনটি শতক ও পাঁচটি অর্ধশতকের পর তাকে আর বাদ দিতে পারেনি পাকিস্তানের নির্বাচকরা। ফলে দলে আর জায়গা পাননি আজহার।

‘হঠাৎ করে হলেও আমি ঠিক সময়েই অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তাছাড়া আমি টেস্ট ক্রিকেটের দিকেই মনোযোগ দিতে চাই এবং এটাই দীর্ঘ করতে চাই।’ আজ লাহোরে এক সংবাদ সম্মেলনে আজহার এসব কথা বলেন।

সাবেক অধিনায়ক হিসেবে দলের বর্তমান অধিনায়ক সরফরাজের জন্য শুভ কামনা জানিয়েছেন আজহার। আগামী বছর বিশ্বকাপ সামনে রেখে দলকে শভ কামনা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘সরফরাজকে আমি পূর্ণ সমর্থন করি। আমি জানি আগামী বছর ইংল্যান্ডে দলকে ভালোভাবেই নেতৃত্ব দিবে সে। তার ওপর ভরসা করায় যায়।’

ওয়ানডে ক্রিকেটে আজহার আলী খেলেছেন মাত্র ৫৩টি ম্যাচ। ৩৬.৯০ গড়ে সংগ্রহ করেছেন ১৮৪৫ রান। ক্যারিয়ারে তিনটি শতক ও ১২টি অর্ধশতকের ইনিংস খেলেছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ