প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গণবিরোধী সরকার হলেও সংলাপ করতে হয় : সাকি

রফিক আহমেদ : গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেছেন, সংলাপ যখন প্রয়োজন তখন গণবিরোধী সরকার হলেও সংলাপ করতে হয়। চলমান সংকট থেকে উত্তরণের জন্য সংলাপে যেতে হয়। বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক সাইফুল হককে গত বুধবার রাতে টেলিফোন করে সংলাপে অংশগ্রহণ করার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে টেলিফোন করা হয়েছে। আমরা সংলাপকে স্বাগত জানাই। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় ঢাকার হাতিরপুলের রোজ ভিউ প্লাজার অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী বলেন, বিরোধীদল ইভিএম পদ্ধতিতে নির্বাচন করার বিষয়টি বাতিলের দাবি জানালেও সরকার তা ব্যবহার করার চেষ্টা করছে। আমরা এটা ব্যবহারকে ষড়যন্ত্র হিসেবে দেখছি। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ ভোটারবিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় এসে এখনো টিকে আছে। দেশে এখন ন্যূনতম গণতন্ত্র নেই।

তিনি বলেন, রাষ্ট্রের ভেতর রাষ্ট্র তৈরি হচ্ছে। রাষ্ট্র ক্রমান্বয়ে সংবিধান থেকে সরে যাচ্ছে। সরকার সম্পূর্ণ আমলাদের উপর নির্ভর করছে। সরকার নির্বাচন ব্যবস্থা ও কর্তৃত্ব কায়েম করছে। কোন রাজনৈতিক দল পর পর দু’টি জাতীয় নির্বাচনে অংশ না নিলে নিবন্ধন বাতিল করা হবে। যার ফলে উচ্ছা না থাকলেও নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগলো নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে।

জোনায়েদ সাকির সভাপতিত্বে গণসংহতি আন্দোলনের সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় নির্বাহী সমন্বয়কারী আবুল হাসান রুবেল, কেন্দ্রীয় রাজনৈতিক পরিষদের সদস্য ফিরোজ আহমেদ, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য বাচ্চু ভূঁইয়া, মনিরউদ্দীন পাপ্পু, আবু বকর রিপন ও আরিফুল ইসলামসহ কেন্দ্রীয় বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ