প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পদ্মা সেতুতে নতুন স্প্যান বসাতে সময় লাগবে আরো ২ মাস

কান্তা আইচ রায় : গত জুনে পদ্মা সেতুর পঞ্চম স্প্যানটি বসানো হয়েছিলো। মাওয়া প্রান্তে প্রস্তুত আরো ৫টি পিলার। তবে, কারিগরি জটিলতার কারণে আপাতত স্প্যান বসানো যাচ্ছে না। তাই জাজিরা প্রান্তে আগে বসানো ৫টি স্প্যানের পাশে নতুন স্প্যান বসাতে সময় লাগবে আরো ২ মাস। প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা অবশ্য অল্প সময়েই আরো কয়েকটি স্প্যান বসানোর ব্যাপারে আশাবাদী।

সেতুর মোট পিলার ৪২টি। প্রতি ৬ টি নিয়ে এক একটি মডিউল। একটি স্প্যানের সঙ্গে অন্য একটি স্প্যান জোড়া দেয়ার প্রক্রিয়া বেশ জটিল। তাই এক সাথে শেষ করতে হয় পুরো মডিউলের কাজ। সে হিসেবে ৭ নম্বর মডিউল অর্থাৎ জাজিরা প্রান্তে সেতুর একেবারে শেষ মাথায় পর পর বসানো হয়েছে ৫টি স্প্যান।

এরপর কোন মডিউলে বসানো হবে স্প্যান তা নিয়ে শুরু হয় জটিলতা। কারণ, মাওয়া প্রান্তে এখন এক নম্বর মডিউলের ৫টি পিলার প্রস্তুত হলেও নকশা জটিলতায় তৈরি করা যাচ্ছে না ৬ নম্বরটি। পুরো মডিউলের কাজ শেষ হচ্ছে না বলে এ মডিউলের সবগুলো স্প্যান প্রস্তুত থাকলেও তা এখনই পিলারের ওপর তোলা যাচ্ছে না। এ কারণে গেলো ৫ মাসে বসেনি নতুন কোন স্প্যান।

পদ্মা সেতুর প্রকল্প পরিচালক শফিকুল ইসলাম বলেন, আমাদের অনেকগুলো পিলার রেডি আছে। তবে সিকোয়েন্স না মেলায় দেরি হচ্ছে। ইয়ার্ডে এখন প্রস্তুত আরো ১২টি স্প্যান। কিন্তু মাওয়া প্রান্তে যে স্প্যানগুলো বসানো যাচ্ছে না, সেগুলো নিয়ে স্থান সঙ্কটে পড়েছে কর্তৃপক্ষ। এক একটি স্প্যান এত ভারি আর লম্বা যে চাইলেই যে কোন জায়গায় রাখা সম্ভব নয়। আবার সেতুর আকৃতি ইংরেজি এস অক্ষরের মতো হওয়ায় প্রতিটি স্প্যানের নকশাও আলাদা। চাইলেই একটি স্প্যান অন্য একটি পিলারে বসানো সম্ভব নয়। এ অবস্থায় সাময়িকভাবে সেগুলো নিয়ে রাখা হচ্ছে মাওয়া প্রান্তের পিলারগুলোর ওপর।

শফিকুল ইসলাম বলেন, স্প্যান বানানো হয়েছে। এগুলো স্টোর করার জন্য কিছু টাকা লাগবে। আমরা স্প্যানও উঠাতে পারছি না। এগুলো এতটাই হেভি জিনিস যে মাটিতেও রাখা যায় না।

পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের প্রধান পরামর্শক অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী বলেন, গত মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে এগুলো চর এলাকায় নিয়ে রাখা হবে। যখন টার্ন আসবে তখন সেগুলো এনে বসানো হবে। প্রকল্প সূত্র বলছে, এখন পর্যন্ত মূল সেতুর কাজ শেষ হয়েছে ৬৭ শতভাগ। সূত্র : সময় টিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ