প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠাতে পারবে সকল বৈধ নিয়োগ সংস্থা

প্রিয় সংবাদ : বাংলাদেশ থেকে সকল বৈধ নিয়োগ সংস্থা মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠাতে পারবে বলে জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব বেগম রৌনক জাহান। তিনি জানান, এখন আর কোনো সিন্ডিকেট থাকবে না। সবার জন্য মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানোর বিষয়টি উন্মুক্ত করা দেওয়া হবে।

৩১ অক্টোবর, বুধবার ইস্কাটনস্থ প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশের শ্রমবাজার আরও সম্প্রসারিত ও শক্তিশালীকরণে বাংলাদেশ ও মালয়েশিয়ার মধ্যে ২য় জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের সভা শেষে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে রৌনক জাহান বলেন, ‘মালয়েশিয়ায় এখন থেকে সব রিক্রুটিং এজেন্সি কর্মী পাঠাতে পারবে। এটা সবার জন্য ওপেন করা হয়েছে।’

আগের মতো সিন্ডিকেট হয়ে কর্মী যাবে কি না, এ প্রশ্নের জবাবে সচিব বলেন, ‘সেটা থেকে বের হওয়ার জন্যই আমরা আলোচনা করেছি। সবার জন্য এটা ওপেন করে দেওয়া হবে। সবাই কর্মী পাঠাতে পারবে।’

ভিসা সত্যায়ন প্রসঙ্গে সচিব বলেন, ‘এটি নিয়ে আইনি বাধ্যবাধকতা আছে। সেজন্য ভিসা সত্যায়ন করতে হবে।’

নতুন করে সিন্ডিকেট হচ্ছে, এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এ রকম কিছুই হচ্ছে না। তবে চেষ্টা করছি, আমরা একটা সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনায় যেন যেতে পারি। বাংলাদেশের জন্য এটা একটা খুবই প্রয়োজনীয় বিষয়। একটা হচ্ছে কষ্ট কমানো, আরেকটি হচ্ছে ইউনিফাইড সিস্টেম- এই দুটি বিষয়ে আমরা ঐক্যমতে পৌঁছেছি। দু’দেশের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক- এমওইউ সই হয়েছে।’

প্রবাসীকল্যাণ সচিব বলেন, ‘মালয়েশিয়া থেকে সিন্ডিকেটের কোনো চাপ নেই। বরং মালয়েশিয়ায় সরকার পরিবর্তন হওয়ায় তারা একটি স্বচ্ছ সিস্টেম চাচ্ছে, আমরাও সেটা চাচ্ছি। আমরা একটা বাস্তবসম্মত সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য দুই পক্ষই কাজ করছি।’

কবে থেকে কর্মী মালয়েশিয়ায় যাবে- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘যত দ্রুত সম্ভব আমাদের কর্মী, সেখানে (মালয়েশিয়া) পাঠানোর বিষয়ে আলোচনার জন্য দ্বিতীয়বারের মতো জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের সভা হয়েছে। তবে কবে থেকে কর্মী মালয়েশিয়ায় যাবে, সেটা সুনির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না।’

বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব রৌনক জাহান।

মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনের হাইকমিশনার শহীদুল ইসলামসহ প্রতিনিধিদলে মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (কর্মসংস্থান) ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন, জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর মহাপরিচালক মো. সেলিম রেজা, ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালক গাজী মোহাম্মদ জুলহাস, এনডিসি, শ্রম কাউন্সেলর মো. সায়েদুল ইসলাম এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় মালয়েশিয়ার পক্ষে মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়ের নীতি বিভাগের আন্ডার সেক্রেটারি মো. বেটি হাসানের নেতৃত্বে ছয় সদস্যের প্রতিনিধিদল উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকালে মালয়েশিয়ার প্রতিনিধিদল প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলামের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।

গত ২৫ সেপ্টেম্বর মালয়েশিয়ার পুত্রজায়ায় বাংলাদেশের সঙ্গে মালয়েশিয়ার ১ম জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় বাংলাদেশের সকল বৈধ নিয়োগ সংস্থার মাধ্যমে কর্মী নিয়োগের বিষয়ে উভয়পক্ষ ঐকমত্যে উপনীত হয়েছিল।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত