প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যৌন হয়রানির মামলায় আদালতে হাজির হন এমজে আকবর

ইমরুল শাহেদ : ‘মি টু’ আন্দোলনের পরিণতিতে যৌন কেলেংকারির ঘটনা মাথায় নিয়ে ভারতের সাংবাদিক-রাজনীতিবিদ এমজে আকবর কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসেবে পদত্যাগ করেন। তারপর তিনি গত ১৮ অক্টোবর অভিযোগকারী প্রিয়া আমানের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করলেও সেদিন তিনি আদালতে হাজির হননি। কিন্তু আদালত থেকে তাকে ৩১ অক্টোবর হাজির হওয়ার জন্য বলা হয়। সে অনুযায়ী গতকাল বুধবার তিনি আদালতে হাজির হন। এদিন এমজে আকবর আদালতকে বলেন, ‘আমি প্রিয়া আমানের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করেছি। কারণ তার টুইটার থেকে বেশ কয়েকটি টুইট প্রকাশ করা হয়েছে, যা আমার জন্য মানহানিকর। আফ্রিকায় সরকারি সফর শেষ করে দেশে ফেরার পরই প্রথম টুইটটি আমার চোখে পড়ে।’

তিনি ১০ থেকে ১৩ অক্টোবরের মধ্যে করা প্রিয়া রামানির বেশ কয়েকটি টুইটের কথা উল্লেখ করেন। তার সঙ্গে উল্লেখ করেন ২০১৭ সালে ভোগ পত্রিকায় প্রকাশিত একটি লেখার কথাও। তিনি দাবি করেন, এটার একটা ইতিহাস আছে।

এমজে আকবর আদালতের বক্তব্যে বলেন, টুইটের প্রথম বাক্যেই অস্বাভাবিক একটা বিষয় রয়েছে। ২০১৭ সালে ভোগে যখন লেখাটি প্রকাশিত হয় তখন তাতে আমার নাম ছিল না। রামানি সেই লেখায় কেন আমার নাম উল্লেখ করেননি জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি তো তার সঙ্গে সে রকম কিছুই করিনি।’

গত মাসে ‘মি টু’ আন্দোলন শুরু হওয়ার পর প্রিয়া রামানিই প্রথম নারী যিনি এমজে আকবরের নাম উল্লেখ করেন। এরপর তার বিরুদ্ধে একে একে ২০ নারী যৌন হয়রানির অভিযোগ উত্থাপন করেছেন। এসব ঘটনা ঘটেছে তিনি যখন টেলিগ্রাফ ও দি এশিয়ান এ্যাজের সম্পাদক ছিলেন। এনডিটিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত