Skip to main content

সব দলের সঙ্গেই সংলাপ করবেন শেখ হাসিনা

আবুল বাশার নূরু : নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধনকৃত সকল দলের সঙ্গেই সংলাপ করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আওয়ামী লীগের একাধিক শীর্ষ নেতা জানিয়েছেন, সংলাপের ইচ্ছা প্রকাশ করে যারাই চিঠি দেবেন তাদের সঙ্গেই সংলাপ করবেন শেখ হাসিনা। শুধু দলই নয় নিবন্ধনকৃত দলের নেতৃত্বাধীন জোটের সঙ্গেও সংলাপ করবেন আওয়ামী লীগ প্রধান। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সংলাপের উদ্যোগকে বিশ্ব সম্প্রদায় স্বাগত জানিয়েছেন। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও বিকল্পধারার পাশাপাশি অন্যান্য রাজনৈতিক দলের সঙ্গেও সংলাপে বসতে রাজি রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। বুধবার সচিবালয়ে ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত মারি আন বোখতা ও জার্মানির রাষ্ট্রদূত টমাস প্রিনজের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের একথা জানান ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, রাষ্ট্রদূতরা খুব আশাবাদী যে, সংলাপের মাধ্যমে একটি ভালো নির্বাচন হবে। নির্বাচনের সময় আচরণ বিধি তাদের জানানো হয়েছে। দুই রাষ্ট্রদূতই সংলাপের উদ্যোগকে ইতিবাচক বলে উল্লেখ করেছেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, শুধু ঐক্যফ্রন্ট বা যুক্তফ্রন্ট নয়, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, অন্যান্য দলের সাথেও সংলাপে বসতে রাজি। তবে সময় একটি ব্যাপার, সিডিউলের বিষয় আছে, তবে প্রধানমন্ত্রী আন্তরিক। এর মধ্যে সিডিউল ঘোষণা হয়ে যাবে, প্রধানমন্ত্রীর টাইট সিডিউল রয়েছে, এরই মধ্যে করতে হবে। ওবায়দুল কাদের বলেন, আলোচনা থেকে অনেক কিছুই জানা যাবে। আলোচনার কিছু নির্দিষ্ট করা নেই, যে কোন বিষয় আলোচনা হবে, প্রধানমন্ত্রী কোন প্রি-কনডিশন দেননি। ঐক্যফ্রন্ট, বিকল্পধারা প্রস্তাব দিয়েছে, তারা চিঠি পাঠিয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর সাথে আলোচনা করে চিঠির জবাব দিয়ে সময় দেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবাহান চৌধুরী জানিয়েছেন, নিবন্ধনকৃত কোন দল যদি সংলাপে বসার আগ্রহ প্রকাশ করে তাদের সঙ্গে সংলাপ করবেন শেখ হাসিনা। খালেদা জিয়ার সাজা নিয়ে বিএনপির আপত্তি প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, রায় প্রধানমন্ত্রী বা আওয়ামী লীগ দেয়নি, রায় দিয়েছেন আদালত। লিগ্যাল ম্যাটারের সাথে ডায়ালগের কী সম্পর্ক? ডায়লগ ডায়ালগের সঙ্গে চলবে। তারা এ বিষয় উত্থাপন করতে পারে না। সেহেতু কোন প্রি-কনডিশন এখানে নেই। তারা আলোচনা করতে পারে কিন্তু এ বিষয়ে তো একেবারে আদালতের বিষয়। সংলাপে প্রধানমন্ত্রীর আগ্রহ প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা আমাদের দলে এ ধরনের ডায়ালগের পক্ষে ছিলাম না, এটা তো ওপেন। আমার যা বলেছি স্ট্রং ভয়েস, আমাদের নেত্রী যা সঠিক মনে করেছেন তার সঙ্গে আমরা সবাই অভিন্ন মত প্রকাশ করি। এখন আগাম কোন মন্তব্য থেকে বিরত থাকতে চাই। সংবিধানের বিষয় আছে, আইন আদালতের ব্যাপার, কিছু বিষয় আছে নির্বাচন কমিশনের বিষয়। ওবায়দুল কাদের বলেন, সংলাপকে দলমত নির্বিশেষে বেশিরভাগ মানুষ পূর্ণ সমর্থন দিচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর অসামান্য উদ্যোগকে স্বাগত জানাচ্ছে। সম্পাদনা: মাহাবুব আলম