প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ঝুঁকিপূর্ণভাবে বিক্রি হচ্ছে সিলিন্ডার গ্যাস

জাগো নিউজ : বিস্ফোরক আইনের শর্ত লঙ্ঘন করে মজুদ করা হচ্ছে সিলিন্ডার গ্যাস। অনুমোদন ছাড়াই ঝুঁকিপূর্ণভাবে বিক্রিও করা হচ্ছে এসব সিলিন্ডার। ফলে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। নিহতও যাচ্ছেন অনেকে। তাই মানুষের জীবনের নিরাপত্তার স্বার্থে মাঠে নেমেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর।

এরই অংশ হিসেবে মঙ্গলবার চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন সিলিন্ডার গ্যাস বিক্রয়কারী প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালায় ভোক্তা অধিদফতর। এ সময় দুটি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানাও করা হয়।

এর মধ্যে বিস্ফোরক আইনের শর্ত লঙ্ঘন করে ঝুঁকিপূর্ণভাবে সিলিন্ডার গ্যাস অধিক মজুদ করায় নগরীর হালিশহরের কেএইচ এন্টারপ্রাইজকে ১০ হাজার টাকা এবং অনুনমোদিত সিলিন্ডার গ্যাস বিক্রি করায় বিসমিল্লাহ এন্টারপ্রাইজকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অধিদফতরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা জানান, মঙ্গলবার চট্টগ্রাম মহানগরীর ডবলমুরিং, হালিশহর ও পাহাড়তলী থানা এলাকায় অভিযান চালানো হয়। এ সময় ১৪টি প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করে ৮টি প্রতিষ্ঠানকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর বিভিন্ন ধারায় মোট ৭৭ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এর মধ্যে দুটি গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রয়কারী প্রতিষ্ঠান রয়েছে। অভিযানকালে প্রতিষ্ঠানগুলোকে যথাযথভাবে বিস্ফোরক আইন মেনে গ্যাস সিলিন্ডার মজুদ ও বিক্রির নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। পরবর্তীতে তারা আইন অমান্য করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে অধিদফতরের পক্ষ থেকে সতর্ক করা হয়।

অভিযান পরিচালনা করেন অধিদফতরের চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক নাসরিন আক্তার, বিকাশ চন্দ্র দাস ও মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান। তাদের সার্বিক সহযোগিতা করে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ।

অভিযানে বাসি খাবার, মেয়াদোত্তীর্ণ কোমল পানীয়, বিস্কুট, প্রসাধনী, ওষুধ, পচা খেজুর এবং রঙ দেয়া করমচা (কথিত চেরি) ধ্বংস করা হয়। কম ওজনের চারটি বাটখারা জব্দ করা হয়।

মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রির জন্য সংরক্ষণ করায় জনতা ফার্মেসিকে ১৫ হাজার টাকা জরিমান করা হয়। এ সময় মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ ধ্বংস করা হয়। হালিশহরের পানির কলে অবস্থিত ফুড ভ্যালিকে ১০ হাজার টাকা, আগ্রাবাদের এক্সেস রোডের ফাল্গুনী ফ্রুটসকে ৫ হাজার টাকা এবং বাটখারার ওজনে কারচুপির জন্য নজরুলের গোশতের দোকানকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ ছাড়া এ ব্লক এলাকার আলমদিনা রেস্টুরেন্টকে ১০ হাজার টাকা, মেয়াদোত্তীর্ণ বিস্কুট, ড্রিংক ও প্রসাধনী বিক্রয়ের দায়ে আল রাজী জেনারেল স্টোরকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত