প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নির্বাচনই হচ্ছে ক্ষমতা যাওয়ার একমাত্র পথ জাতীয় ঐক্যেফ্রন্টের উদ্দেশ্য হানিফ

আহমেদ জাফর: আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ জাতীয় ঐক্যেফ্রন্টের নেতাদের উদ্দেশ্য করে বলেছেন, আমাদের নেত্রী আপনাদেরকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। আপনারা নেত্রীর সঙ্গে বৈঠক করুন। তবে নির্বাচনে অংশ নিবেন সংবিধানের আলোকেই। নির্বাচন হচ্ছে ক্ষমতা যাওয়ার একমাত্র পথ। আমরা আশা করি আগামী নির্বাচনে জনগণ আওয়ামী লীগকে ভোটের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসবে। যাদের জনগণের উপর আস্থা নেই। তারা ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য ষড়যন্ত্রের পথ বেঁছে নেয়।

মঙ্গলবার (৩০ অক্টোবর) বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে কৃষক লীগ আয়োজিত ‘কৃষক বাঁচাও- দেশ বাঁচাও’ দিসব উপলক্ষে কৃষক সমাবেশ তিনি এসব কথা জানান।

তিনি বলেন, সংবিধানের আলোকেই সংলাপ অনুষ্ঠিত হবে সংবিধানের আলোকেই সকল আলোচনা হবে। সংবিধানের বাহিরে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

তিনি বলেন, এই ঐক্যফ্রন্টে এমন নেতা আছে তারা দেশের শান্তি ও স্থিতিতে বিশ্বাস করে না। ঐক্যফ্রন্টের এক নেতা কিছু দিন আগে দেশের সেনাবাহিনী নিয়ে চরম উস্কানিমূলক কথা বলেছেন। এটা দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অশুভ তৎপরতার অংশ। এই সমস্ত নেতাদের নিয়ে জোট করলে দেশ ও জাতী কোনো উপকার হবে না।

হানিফ বলেন, গল্পে আছে পাগলের সুখ মনে-মনে। আপনারা রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসার সুখ দেখছেন মনে- মনে। রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসতে হলে জনগণের ম্যান্ডেট লাগবে। জনগণের প্রতি আপনাদের কখনও
আস্থা ছিলো না। আপনার ঐক্যফন্ট করে চলে গেছেন বিদেশীদের কাছে। বিদেশীদের কাছে ধর্না দিয়েছেন। বিদেশী প্রভুরা আপনাদেরকে ক্ষমতায় বসাবে। এ দেশে সকল ক্ষমতার মালিক জনগণ। আপনার জনগণের কাছে যাওয়ার চিন্তা করেননি।

বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে হানিফ বলেন, দেশের জনগণ আর দুর্নীতিবাজ- সন্ত্রাসীদের ক্ষমতায় দেখতে চায় না। এদের কোনো নীতি আদর্শ নেই। এই দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান বন্দুকের নল ব্যবহার করে ক্ষমতা এসে দল তৈরি করেছে। এরা কখন জনগণের ম্যান্ডেটে বিশ্বাস করে না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ