প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাত বছর পর ইংল্যান্ডের টেস্ট দল থেকে বাদ পড়তে পারেন ব্রড

স্পোর্টস ডেস্ক : ২০১২ সালের পর প্রথমবারের মতো ইংল্যান্ডের টেস্ট দল থেকে বাদ পড়তে পারেন পেসার স্টুয়ার্ট ব্রড। উপমহাদেশের কন্ডিশনের কথা মাথায় রেখে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আগামী ৬ই নভেম্বর থেকে অনুষ্ঠিতব্য প্রথম টেস্টে তিন স্পিনার নিয়ে মাঠে নামার সম্ভাবনা রয়েছে ইংলিশদের। এর ফলে কপাল পুড়তে পারে ব্রডের।

 

গল টেস্টের জন্য তিন স্পিনার হিসেবে টিম ম্যানেজমেন্টের পছন্দের তালিকায় আদিল রশিদ এবং মঈন আলি ছাড়াও আছেন ২৭ বছর বয়সী জ্যাক লিচ। অপরদিকে পেস আক্রমণের ক্ষেত্রে জেমস অ্যান্ডারসন ও বেন স্টোকসের অবস্থান অনেকটা নিশ্চিত বলা চলে।

 

তাদের সাথে তৃতীয় পেসার হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে স্যাম কুরান এবং ক্রিস ওকসের। বোলিংয়ের পাশাপাশি ব্যাটিংয়ের দিক থেকেও সাম্প্রতিক সময়ে ব্রডের চেয়ে এগিয়ে আছেন এই দুই ইংলিশ ক্রিকেটার। তবে ব্রডকে এখনই আশাহত করছেন না অধিনায়ক জো রুট। তিনি জানিয়েছেন এখনও দল চূড়ান্ত করা হয়নি বিধায় সুযোগ থাকছে ব্রডের।

 

দল নির্বাচন নিয়ে রুট বলেন, ‘আমরা এখনও দল চূড়ান্ত করিনি। স্টুয়ার্ট তিন ম্যাচের সিরিজে অনেক বড় ভূমিকা রাখতে পারে এবং নিশ্চিতভাবেই সে প্রথম ম্যাচের পরিকল্পনাতেও থাকবেন।’

 

তবে এশিয়ার কন্ডিশনে এর আগে ২০০৮ সালে চেন্নাই টেস্টের দল থেকে বাদ পড়তে হয়েছিল স্টুয়ার্ট ব্রডকে। পরবর্তীতে ২০১২ সালে কলকাতায় অ্যালিস্টার কুকের নেতৃত্বাধীন দল থেকেও বাদ পড়েছিলেন তিনি। তাই এবারও তার বাদ পড়ার গুঞ্জন একেবারেই উড়িয়ে দেয়া যাচ্ছেনা।

 

৩২ বছর বয়সী এই পেস তারকাকে এশিয়ার কন্ডিশনে খুব একটা বিবেচনায় না আনা হলেও এখানকার কন্ডিশনে তার রেকর্ড কিন্তু খুব একটা খারাপ নয়। এই অঞ্চলে এখন পর্যন্ত মোট ১৭টি টেস্টে ৩৬.৯২ গড়ে ৪১টি উইকেট শিকার করেছেন তিনি। যেখানে তার স্ট্রাইকরেট ৭৯.৫০ এবং ওভার প্রতি রান খরচ করেছেন মাত্র ২.৭৪।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ