প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সংলাপ নিয়ে ব্যস্ততা বেড়েছে আওয়ামী লীগ ও ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের

আহমেদ জাফর: জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাথে আগামী নির্বাচন নিয়ে সংলাপে বসার ইচ্ছা জানানোর ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে ইতিবাচক সাড়া মিলছে। সোমবার বিকেলে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের পক্ষে থেকে সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেন, দলের সবার সম্মিতিক্রমেই জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারাদের সাথে সংলাপ বসা হচ্ছে।

সোমবার সংবাদ সম্মেলন শেষে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারি ড. আবদুস সোবহান গোলাপ প্রধানমন্ত্রীর একটি ফোন পান। সেই ফোনালাপেই স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী সংলাপে ঐক্যফ্রন্টের নেতারা খাবারে কোন মেনু পছন্দ করেন এবং সংলাপের টেবিলে তাদের কি খেতে দেয়া হব তা জানতে বলেন।

ফোন রেখে কথপোকথনের বিষয়টি দফতরে উপস্থিত সবার সঙ্গে শেয়ার করেন আবদুস সোবহান গোলাপ। সেখানে উপস্থিত একটি সূত্র জানায়, গোলাপের ভাষায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জেনে নিতে বলেছেন।

গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু বলেন, ‘আমরা ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে সংলাপের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে একটি চিঠি দিয়েছিলাম। তারপর তারা জানিয়ে দিয়েছিলেন খুব তাড়াতাড়ি বসবেন। আমরা কয়জন যাচ্ছি, কে কে যাচ্ছি সেই তালিকা তারা জানতে চেয়েছেন। আমরা আজকেই লিস্টটা দিয়ে দেবো। তারা আমাদের ১ নভেম্বর আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।’ জোটের ১৫ জনের মতো সদস্য সংলাপে যেতে পারেন বলে তিনি জানান।

সংলাপে আওয়ামী লীগের কত সদস্য থাকবে দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, এই সংলাপে আওয়ামী লীগের কত সদস্য থাকবে তা এখনো ঠিক করা হয়নি। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের লিস্ট পেয়ে আমরা নির্ধারণ করব।

উল্লেখ্য গত ২৮ অক্টোবর জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতা ড.কামাল হোসেনের সই করা একটি চিঠি প্রধানমন্ত্রী বরাবর পাঠানো হয়। তা অফিসিয়ালি গ্রহণ করেন আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ। সেই চিঠির জন্য প্রধানমন্ত্রী ধন্যবাদ দিয়েছেন। তারই পরিপ্রেক্ষিতে আজ একটি অফিসিয়াল বক্তব্য পাঠান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদকের মাধ্যমে ড. কামাল হোসেনের কাছে।

সর্বাধিক পঠিত