প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘মরার পরেও আমার শরীর এনাটমি জমি দখল করবেন না’

রবিন আকরাম : জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতা জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, ‘আমার নামে মাছ চুরি, ফল চুরির মামলা হচ্ছে। আমি মরার পরেও আমার শরীরটি কিন্তু এনাটমি জমি দখল করবেন না। অথচ আমার বিরুদ্ধে জমি দখলের মামলা, চাঁদাবাজির মামলা হচ্ছে। আমাদের যে ঐক্যটা হয়েছে, এতে বাংলাদেশের গুণগত পরিবর্তন আনবে।’

রোববার রাতে চ্যানেল আইয়ের টকশো’তে এসব কথা বলেন তিনি।

ব্যারিস্টার মইনুল প্রসঙ্গে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘মইনুল আমার ছোট বেলার বন্ধু। তিনি মাটিতে শোন না। তিনি সোনার চামচ মুখে নিয়ে না জন্ম নিলেও মানিক মিয়ার রক্ত তার শরীরে।’

মাসুদা ভাট্টিকে নিয়ে উপস্থাপকের প্রশ্নের জবাবে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, মইনুল হোসেন মাসুদা ভাট্টিকে ‘চরিত্রহীন’ বলেছেন। চরিত্রহীন বলতে আমরা বুঝি ক্যারেকটারলেস। চরিত্রহীন বলতে শরীর বিক্রি করা বোঝায় না। বাংলাদেশে একজন নারীকে এই কথাটি বলা হয়তো ঠিক হয়নি। তারপরেও মইনুল তার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। মইনুল বরিশালের মানুষ, একটু রগচটা মানুষ। তিনি সংবাদ সম্মেলনও করতে চেয়েছেন। তারপরেও মানহানির মামলা হয়েছে। যে মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা হয় না, তারপরেও হয়েছে।’

‘আজকে ২০০ কোটি টাকার মামলা করলেও এক টাকার কোর্ট ফি দিতে হয় না। ১৯৮৪ সালে দৈনিক সংবাদ পত্রিকা আমাদের বিরুদ্ধে একটি খারাপ নিউজ করেছিল। আমরা প্রতিবাদ করেছিলাম। পরে আমাদের ওখানে হামলা হয়েছিল। আলমগীর নামের একজন শ্রমিক নেতা ছিলেন, তারা আমার ওখানে হামলা করেছিলেন। আমার ওখানে ৬১ জন মেয়ে আহত হন। তখন শেখ হাসিনা ফরিদপুরে যাচ্ছিলেন। তিনি বললেন, কী হচ্ছে এখানে? এই ঘটনায় দুইটি মামলা হতে পারে। কিন্তু এখন কী হচ্ছে? মইনুল আমাকে ফোন করেছিলেন। বলেছিলেন, কামাল আমার জন্য কিছু করবেন না? পরে আমি কামাল হোসেনের বাড়ি গেলাম।’

তারেককে ধ্বংস করার জন্য কামালকে আনা হয়েছে- এমন প্রশ্নের জবাবে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘না এটা সম্ভব নয়। আমরা তারেককে অনেক স্নেহ করি।’