প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গ্রুপসেরা হয়েই সেমিফাইনালে বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক : কিশোরদের সাফ মিশনের শুরুটা ছিল দুর্দান্ত। সেই ধারাটা গতকালও বজায় রেখেছিল মেহেদিরা। ৩৪ মিনিটে লাল কার্ড দেখে যখন মাঠ ছাড়লেন বাংলাদেশের গোলরক্ষক মিটু মারমা, তখন মনে হয়েছিল ম্যাচ জয় করা হচ্ছে না। কিন্তু ১০ জন নিয়েই পুরো ম্যাচ লড়াই কওে ২-১ গোলে জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা। আর এ জয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই সেমিফাইনালে উঠেছে নিহাত জামান উচ্ছ্বাসরা। সেমিতে বাংলাদেশ প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়েছে লড়াইয়ে ভারতকে।

সোমবার সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপে আয়োজক দল নেপালের বিপক্ষে ছিলো গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লড়াই। ড্র করলেই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতো মোস্তফা আনোয়ার পারভেজের শিষ্যরা। সেখানে জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে দেশের কিশোররা। স্বাগতিকরা ম্যাচ হেরেছে ২-১ ব্যবধানে। এর আগে প্রথম ম্যাচে মালদ্বীপকে ৯-০ ব্যবধানে হারিয়েছিল বাংলাদেশের কিশোররা। মালদ্বীপকে ৪-০ গোলে হারিয়ে সেমি নিশ্চিত করেছে নেপালও।

ম্যাচের শুরুতে সেই লড়াইয়ে এগিয়ে ছিল বাংলাদেশই। ২ মিনিটেই আয়োজকদের চমকে দিয়ে লিড পায় কিশোররা। ম্যাচে আধিপত্য রেখে খেলতে থাকা বাংলাদেশ শিবিরে বাধা আসে ৩২ মিনিটে। নেপালের আক্রমণভাগের খেলোয়াড় গোলমুখে এগিয়ে গেলে ডি-বক্সের ভেতর ফাউল করেন লাল-সবুজদের গোলরক্ষক। রেফারি সরাসরি লাল কার্ড দেখান দুই মিনিট পর।

১০ জনে পরিণত হওয়া বাংলাদেশের সঙ্গে পেনাল্টিতে ব্যবধান সমান করে নেপাল। প্রথমার্ধে সমতায় থেকে দ্বিতীয়ার্ধে বল গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে ব্যবধান বাড়ায় বাংলাদেশ। তারপর চলে রক্ষণের মন্ত্র। সেই মন্ত্রে সফল হয়ে গ্রুপসেরা হয়ে মাঠ ছাড়ে লাল-সবুজের জার্সিধারীরা।

সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়শিপে এবারের আসরে ‘এ’ গ্রুপ থেকে সেমিতে জায়গা পাকা করেছে বাংলাদেশ ও নেপাল। অন্যদিকে ‘বি’ গ্রুপ থেকে ভারত ও পাকিস্তান। বাংলাদেশ মোকাবেলা করবে ভারতকে এবং পাকিস্তান খেলবে নেপালের বিরুদ্ধে। ১ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে সেমিফাইনাল দুটি। দিনের প্রথম ম্যাচে সকাল দশটায় বাংলাদেশ খেলবে ভারতের বিরুদ্ধে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ