প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বাংলাদেশ রাশিয়া অর্থনৈতিক সহযোগিতা বিষয়ক প্রটোকল স্বাক্ষর

শাহীন চৌধুরী: বাংলাদেশ এবং রাশিয়ার মধ্যে অর্থনৈতিক উন্নয়ন সংক্রান্ত আন্তঃসরকার কমিশনের বৈঠকে অর্থনৈতিক, কারিগরি ও বৈজ্ঞানিক সহযোগিতা সংক্রান্ত প্রটোকল স্বাক্ষরিত হয়েছে। গত ২২ থেকে ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত তিন দিনের এ বৈঠক বাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে অনুষ্ঠিত হয়। এই বৈঠক বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সিনিয়র সচিব কাজী শফিকুল আযম। গতকাল ইআরডি’র এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

দুই দেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত প্রটোকলে বাণিজ্য সহযোগিতা ও উন্নয়ন, পারমানবিক বিদ্যুৎ সহযোগিতা, কৃষি ও মৎস্য খাতের উন্নয়ন, শিল্প উন্নয়ন, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্ত সহযোগিতা, বিজ্ঞান ও শিক্ষা খাতের উন্নয়ন ইত্যাদি বিষয় অন্তর্ভুক্ত করা হয়। রাশিযার পক্ষে প্রটোকলে স্বাক্ষর করেন, সেদেশের কৃষি বিষয়ক উপমন্ত্রী আই ভি সেসটাকভ। ১৬ সদস্যের বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও সরকারী সংস্থার সিনিয়র কর্মকর্তারা অন্তর্ভুক্ত ছিলেন। প্রতিনিধিদলে বেসরকারি খাতের দুই সদস্যদের মধ্যে ছিলেন, এফবিসিসিআই-এর প্রতিনিধি হাবিবুল্লাহ ডন এবং আরএমএম গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অনিরুদ্ধ কুমার রায়, যিনি বাংলাদেশে রাশিয়ান কোম্পানি গ্যাজপ্রোমকে প্রতিনিধিত্ব করেন।

বাণিজ্য সহযোগিতার আওতায় দুদেশের মধ্যে যোগাযোগ বাড়ানো, রেগুলেটরি কমিশন গঠন ও শিল্পখাতে বিনিয়োগ বাড়ানোর বিষয়টিও অন্তর্ভুক্ত করা হয়। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের উন্নয়নের জন্য রাশিয়ান কোম্পানি গ্যাজপ্রম ও বাপেক্সের মধ্যে একটি এমওইউ স্বাক্ষরের অনুমোদন দেয়া হয়ে। রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জ্বালানি সরবরাহ, ব্যবস্থাপনা ও কারিগরি সহযোগিতার বিষয়টিও প্রটোকলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। ২০২৩ সালে এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রথম ইউনিট এবং ২০২৪ সালে দ্বিতীয় ইউনিটের নির্মাণ কাজ শেষ হবে।

সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালের ১ মার্চ ঢাকায় ঢাকা ও মস্কোর মধ্যে চুক্তির স্বাক্ষরের মধ্য দিয়ে বাণিজ্য, অর্থনৈতিক, বৈজ্ঞানিক ও কারিগরি সহযোগিতার জন্য আন্তঃসরকার কমিশন গঠন করা হয়েছিল। চুক্তি অনুযায়ী, আন্তঃসরকার কমিশন গঠন করার কথা প্রতিটি দেশের ২০ জন করে সদস্য নিয়ে। বাংলাদেশ ইতোমধ্যেই ২০ সদস্যের কমিশন গঠন করেছে যার মধ্যে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও সরকারী সংস্থার সিনিয়র কর্মকর্তারা রয়েছেন। অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব কাজী শফিকুল আযম কমিশনের নেতৃত্বে রয়েছেন।

আন্তঃসরকার কমিশনের বৈঠকে পারমাণবিক শক্তি, বিদ্যুৎ, কৃষিখাত ছাড়াও ব্যাংকিং, করদাতা, বিমান ও শিক্ষা সহযোগিতার বিষয়ও অন্তর্ভুক্ত ছিল। বৈঠক সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, রাশিয়ার বিভিন্ন সেক্টরে প্রশিক্ষিত জনশক্তি রপ্তানি ছাড়াও দু’দেশের মধ্যে সরাসরি যাত্রীবাহী বিমান অপারেশন পুনরায় চালু করার বিষয় নিয়েও আলোচনা হয়েছে। বাণিজ্য ও ব্যবসা শক্তিশালীকরণের অংশ হিসাবে দ্বিপক্ষীয় করের ঝামেলা এড়াতে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।