প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ধোনির বাদ পড়ার পেছনে কোহলি-রোহিত!

প্রিয়ডটকম: উইন্ডিজের বিপক্ষে চলমান ওয়ানডে সিরিজ শেষে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে অংশ নেবে ভারত। ঘরের মাঠে সিরিজ শেষ করে অস্ট্রেলিয়ায় উড়াল দেবে বিরাট কোহলির দল। অজিদের বিপক্ষেও রয়েছে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। এই দুই সিরিজের জন্য ঘোষিত টি-টোয়েন্টি দলে জায়গা হয়নি মহেন্দ্র সিং ধোনির।

একে বিশ্রাম না বলে ক্যারিয়ার শেষের ইঙ্গিতই দিচ্ছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের ব্যাখ্যা, এই দুটি টি-টোয়েন্টি সিরিজ ছাড়া আগামী ছয় মাসের মধ্যে শুধু নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে ভারত। দুই সিরিজে বাদ পড়ার পর নিউজিল্যান্ড সিরিজে ধোনির জায়গা হবে কি না, সেটা নিয়েও শঙ্কা প্রকাশ করেছে বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম।

ভারতীয় ক্রিকেটে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার পর প্রথমবারের মতো জাতীয় দলে জায়গা হারিয়েছেন ধোনি। তাতে সন্দেহ দানা বেঁধেছে ধোনির ভক্ত-সমর্থকদের মনেও। এ নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেট সমর্থকদের মধ্যে চলছে তুমুল আলোচনা-সমালোচনা। এর মাঝেই জানা গেল, ধোনির বাদ পড়ার এমন সিদ্ধান্তের পেছনে রয়েছেন বিরাট কোহলি-রোহিত শর্মা দুজনই!

বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন্ডিয়ার (বিসিসিআই) নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সিনিয়র কর্মকর্তার বরাত দিয়ে দেশটির কয়েকটি সংবাদমাধ্যম এমন প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘এটা স্পষ্ট যে পরেরবার যখন অস্ট্রেলিয়ায় টি- টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে, তখন ধোনি জাতীয় দলে থাকবে না। সে যদি বিশ্বকাপ না খেলে তাহলে তাকে সেখানে নিয়ে যাওয়ার কোনো অর্থই হয় না।’

কোহলি-রোহিতের উপস্থিতিতেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ নিয়ে ওই কর্মকর্তার সাফ ভাষ্য, ‘নির্বাচক-টিম ম্যানেজমেন্টের মধ্যে দীর্ঘ আলোচনার পরই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ওই বৈঠকে রোহিত শর্মা ও বিরাট কোহলি দু’জনেই উপস্থিত ছিলেন। আপনাদের কী মনে হয়, কোহলি-রোহিতদের অনুমোদন ছাড়াই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ?’ ধোনিকে দলে না রাখার ব্যাখ্যায় বিসিসিআইয়ের প্রধান নির্বাচক এমএসকে প্রসাদ অবশ্য বলেছেন, ধোনিকে বাদ দেওয়া নয়, ‘বিশ্রাম’ দেওয়া হয়েছে। উইকেটের পেছনে ধোনির ব্যাকআপ প্রস্তুত করার জন্যই দুই সিরিজ মিলিয়ে ছয়টি ম্যাচের জন্য ঋষভ পান্ত ও দীনেশ কার্তিককে দলে নেওয়া হয়েছে। তার মতে, ধোনিও মেনে নিয়েছেন এমনটা।

এদিকে উইন্ডিজ ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে আসন্ন দুই টি-টোয়েন্টি সিরিজে ধোনিকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্তকে একদম সঠিক বলেই মত দিয়েছেন সাবেক ভারতীয় ক্রিকেটার অজিত আগারকার। এ নিয়ে আগারকারের ভাষ্য, ‘নির্বাচকরা বলেছেন, ধোনির জন্য টি টোয়েন্টির রাস্তা এখনও বন্ধ নয়। এটা মোটেই আমার বোধগম্য নয়। তবে ওকে দলের বাইরে রাখার সিদ্ধান্ত একদম ঠিকঠাক। পরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২০ সালে। ধোনি ততদিন খেলবে কি না, তার নিশ্চয়তা নেই। টি টোয়েন্টি ক্রিকেটে ধোনির পারফরম্যান্স মোটেই ভালো নয় ইদানীং।’

‘ভবিষ্যতের দিকে তাকাতে হবে জাতীয় দলকে। ধোনি যখন ক্যাপ্টেন ছিল, তখন ও বেশ কয়েকজনকে বাদ দিয়েছিল। এটাই হওয়া উচিত। ক্যারিয়ারে যতই কেউ ভালো খেলুক না কেন, বর্তমানে দাঁড়িয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হয়,’ যোগ করেন ভারতের হয়ে ২৬টি টেস্ট, ১৯১টি ওয়ানডে ও ৪টি টি-টোয়েন্টি খেলা এই সাবেক ক্রিকেটার। ৪ নভেম্বর থেকে ঘরের মাঠে শুরু হতে যাওয়া ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৩ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকে বিশ্রাম নিয়েছেন নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। তার পরিবর্তে ভারতকে নেতৃত্ব দেবেন রোহিত শর্মা। তবে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে আবারও দলে ফিরবেন কোহলি। একই সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবেন দলনেতা হিসেবেও।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ