প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রায়ের প্রতিক্রিয়ায় যা বললেন দুদকের আইনজীবী

অনলাইন ডেস্ক : জিয়া চ্যারিটেবল মামলায় খালেদা জিয়াসহ মামলার অপর আসামি হারিচ চৌধুরী, জিয়াউল ইসলাম মুন্না ও মনিরুল ইসলাম খানকে ৭ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। রায় ঘোষণার পর দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল সাংবাদিকদের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।

রায়ের প্রতিক্রিয়ায় কাজল বলেন, আদালত এ মামলায় ১৫টি ফাইন্ডিংস দিয়েছেন। পাশাপাশি আদালত বলেছেন, এদেশের ক্ষমতার পাদপীঠে থেকে এ ধরনের অর্থ উপার্জন ক্ষমতা অপব্যবহার করে দলীয় ফান্ডের টাকা ও ব্যক্তির কাছ থেকে টাকা বিভিন্ন আসামির সহায়তায় প্রধানমন্ত্রিত্বের পদে থেকে কেউ যেনো এ ধরনের অপরাধ না করে সেজন্য তাদের জন্য একটা মেসেজ হিসেবে দিয়েছেন।

কাজল বলেন, যারা ক্ষমতায় ছিলেন বা যারা আছেন তাদের সবার জন্য আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে। অবৈধভাবে টাকা আত্মসাৎ সর্বোচ্চ করে কেউ যেনো এসব না করে সেজন্য আইনের হুঁশিয়ারিও উল্লেখ করেছেন আদালত। আইনজীবী কাজল বলেন, চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাক্ষী ও প্রসিকিউশন পক্ষের দাখিলকৃত সাক্ষির আলোকে আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠিত হয়। আর ১০৯ ধারা অন্য আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠিত হয়।

কাজল বলেন, খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী থাকা অবস্থায় প্রধানমন্ত্রীর পদ অলঙ্কৃত করে, ক্ষমতার অপব্যবহার করে এই টাকা জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে নিয়ে এসে তা তিনি আত্মসাৎ করেছেন। শুধু তাই নয়, এই ট্রাস্টের নামে তার এক আত্মীয় বেয়াইন সুরাইয়া খানমের কাছ থেকে তিনি কাকরাইলের ৪২ কাঠা সম্পত্তি খরিদ করেছিলেন। এতে তিনি ওই জমির দাম তো দিয়েইছিলেন এর চেয়েও বেশি এক কোটি ৯৪ লক্ষ টাকা তিনি দেখিয়েছেন। এটাও ক্ষমতার অপব্যবহার হিসেবে আমরা প্রসিকিউশন পক্ষ আদালতকে জানিয়েছি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ