প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খালেদা জিয়ার আপিল খারিজ, রায়ে বাধা নেই

এস এম নুর মোহাম্মদ : জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে বিচার চলবে বলে আদেশ দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। আজ সোমবার সকালে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে সাত সদস্যের আপিল বিভাগের বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

এর ফলে জিয়া চ্যারিটেবল মামলায় আজ বিচারিক আদালতে রায় দিতে আর কোনো বাধা থাকল না। আদালতে খালেদার পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী,  জয়নুল আবেদীন। দুদকের পক্ষে ছিলেন খুরশীদ আলম খান, রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে বিচার চলবে বলে হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে করা আপিল খারিজ হওয়ায় এই মামলার রায় ঘোষণায় আর কোনও বাধা নেই বলে জানিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান।

রায়ের তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বেগম জিয়ার আইনজীবী অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেন, আমরা মনে করছি বেগম খালেদা জিয়া ন্যায়বিচার পাননি। খালেদা জিয়াকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখতেই তরিঘরি করে রায় দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে।  অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়া জামিনে অাছেন। তাই চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় তরিঘরি করে রায় দেয়ার জন্য চেষ্টা হচ্ছে। অতীতে আমরা কখনও দেখিনি একজন অসুস্থ ব্যক্তিকে হাসপাতালে রেখে রায় দেয়া হয়েছে।

গতকাল রোববার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন সাত বিচারপতির আপিল বেঞ্চ শুনানি শেষে আজ আদেশের জন্য দিন ধার্য করেন।

উল্লেখ্য, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে ৩ কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা লেনদেনের অভিযোগে খালেদা জিয়াসহ চারজনের বিরুদ্ধে ২০১১ সালের ৮ আগস্ট রাজধানীর তেজগাঁও থানায় এ মামলা করে দুদক। মামলার চার আসামির মধ্যে খালেদা জিয়ার সাবেক রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী পলাতক। তবে হারিছের তখনকার সহকারী একান্ত সচিব ও বিআইডব্লিউটিএ’র নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান কারাগারে রয়েছেন।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ