প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চলতি অধিবেশনে আরপিও সংশোধন করার সুযোগ নেই

কালের কন্ঠ : সরকারের পক্ষ থেকে নতুন করে পাঠানো আর কোনো বিল জাতীয় সংসদের চলতি অধিবেশনে পাস করার সুযোগ নেই। কারণ কোনো বিল পাস করার প্রক্রিয়া সারতে সংসদের অন্তত তিন দিন লাগে। কিন্তু সংসদের অধিবেশন আজ সোমবারই শেষ হচ্ছে। সে ক্ষেত্রে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের বিধান সংযুক্ত করে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) সংশোধনের প্রস্তাব আজ মন্ত্রিসভায় তোলা হলেও তা সংসদে পাস হওয়ার সুযোগ নেই। এ ছাড়া এখনো এই বিল নিয়ে সরকারের পক্ষ থেকে সংসদ সচিবালয়ে কোনো ধরনের যোগাযোগও করা হয়নি। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, ‘চলতি অধিবেশনে পাসের জন্য এর আগে ১৯টি বিল পাওয়া যায়। বিলগুলো পাসের স্বার্থে সংসদের অধিবেশন তিন দিন বাড়ানো হয়। কাল (সোমবার) এই অধিবেশন শেষ হচ্ছে। ফলে কার কোনো বিল সংসদে এলেও তা অধিবেশনে উত্থাপন করা সম্ভব; তবে পাস করা সম্ভব নয়। একটি বিল পাসের জন্য সংসদকে অন্তত তিন দিনের সময় দিতে হবে।’

এক প্রশ্নের জবাবে স্পিকার বলেন, ‘এখনো পর্যন্ত নতুন করে অধিবেশনের মেয়াদ বাড়ানোর কোনো সম্ভাবনা নেই। আর প্রয়োজন আছে বলেও মনে করছি না। এ ধরনের কোনো সুপারিশও আসেনি।’

জাতীয় সংসদের কার্যপ্রণালী বিধি অনুযায়ী, সরকারি বিল সংসদে আসার পর তা স্পিকারের অনুমোদন সাপেক্ষে সংসদ অধিবেশনে উত্থাপন করা হয়। এরপর বিলটি অধিকতর পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য পাঠানো হয় সংশ্লিষ্ট সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে। পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে কমিটির সুপারিশসহ বিলের প্রতিবেদন উত্থাপন করা হয় সংসদ অধিবেশনে। এরপর বিলটি পাস করার জন্য সংসদ অধিবেশনের কার্যতালিকাভুক্ত করা হয়। কার্যতালিকা অনুযায়ী সরকার ও বিরোধী দলের আলোচনার মাধ্যমে পাস হয় বিল।

সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, কার্যপ্রণালী বিধির ত্রয়োদশ অধ্যায়ে বিল উত্থাপনের ক্ষেত্রে মন্ত্রীদের সাত দিনের নোটিশ দেওয়ার বিধান থাকলেও বিশেষ জরুরি ক্ষেত্রে ওই বিধি স্থগিত করে স্বল্প সময়ে বিল উত্থাপন করার সুযোগ আছে। তবে বিল পাস করার ক্ষেত্রে অন্যান্য প্রক্রিয়া অনুসরণ করতে হবে। ফলে মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত বিল আজ সংসদ অধিবেশনে উত্থাপন করা গেলেও পাস করা অসম্ভব। ওই কর্মকর্তাদের মতে, আরপিও সংশোধনীর মতো গুরুত্বপূর্ণ বিল পাস করতে হলে অধিবেশনের মেয়াদ বাড়াতে হবে।

সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা যায়, দশম সংসদের চলতি অধিবেশনে গতকাল রবিবার পর্যন্ত সাত কার্যদিবসে ১৭টি সরকারি বিল পাস করা হয়েছে। আজ আরো দুটি বিল পাস হওয়ার কথা। এ ছাড়া আরো কয়েকটি সরকারি ও বেসরকারি বিল সংসদে থাকলেও সেগুলো তামাদি হয়ে যাবে।

জাতীয় নির্বাচনে ব্যালট পেপারের পাশাপাশি ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের সুযোগ তৈরি করতে আরপিও সংশোধনের প্রস্তাব আজ মন্ত্রিসভার বৈঠকে তোলা হলেও এ সংসদে তা পাস হওয়ার সুযোগ দেখছেন না আইনমন্ত্রী আনিসুল হকও। গতকাল ঢাকায় বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আগামীকাল মন্ত্রিসভায় এটা যদি অনুমোদন হয়ে যায়, তাহলে এটাকে নিশ্চয়ই সংসদে পাঠানো হবে। তবে সংসদ শেষ হয়ে গেলে এটা (আরপিও) পাস করানো সম্ভব না।’

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা গতকাল দুপুরে গণমাধ্যমকে বলেন, আরপিও সংশোধনে ইসির প্রস্তাব যাচাই-বাছাই করে আইন মন্ত্রণালয় তা মন্ত্রিসভায় তোলার জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে পাঠিয়েছে। সোমবার তা তোলা হবে।

পরে আইনমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, সোমবারই যেহেতু সংসদ অধিবেশন শেষ হয়ে যাচ্ছে, সেহেতু প্রক্রিয়াগত কারণে নির্বাচনের আগে আর এ আইন পাস হওয়ার সুযোগ তিনি দেখছেন না।

অবশ্য সরকার চাইলে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ সংশোধন করে তা অধ্যাদেশ আকারে জারি করতে পারে। সে ক্ষেত্রে আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারে বাধা থাকবে না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ