প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সেই জেলারের ঘটনা তদন্তে ৩ সদস্যের কমিটি গঠণ

সুজন কৈরী : ভৈরব রেল পুলিশের হাতে প্রায় ৪ কোটি টাকা ও মাদকসহ গ্রেফতার হওয়া চট্টগ্রাম কারাগারের জেলার সোহেল রানা বিশ্বাসকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। রোববার তাকে সাময়িক বরখাস্তের বিষয়টি নিশিচত করেন কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দীন।

এদিকে রোববার ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে।বরিশালের ডিআইজি প্রিজন্স ছগির মিয়াকে প্রধান করে এ কমিটি গঠণ করা হয়। কমিটির অপর সদস্যরা হলেন যশোর কেন্দ্র্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার কামাল হোসেন ও জয়পুরহাটের জেলার তারেক কামাল।কমিটিকে আগামী ১৫দিনের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে।

কারা সূত্রে জানা গেছে, গ্রেফতার সোহেল রানার বিরুদ্ধে আগেই মাদক গ্রহণসহ বিভিন্ন দুর্নীতির অভিযোগ পেয়েছিল কারা অধিদফতর। কিন্তু হাতেনাতে আটক করতে না পারায় তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া সম্ভব হচ্ছিল না। তবে চট্টগ্রাম কারাগারে থাকা সোহেল রানার নিজস্ব লোকদের বদলির প্রক্রিয়া শুরু করেছিল কারা কর্তৃপক্ষ।ক্রমান্বয়ে সোহেল রানার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হতো। কিন্তু এর আগেই মাদক ও টাকাসহ ধরা পড়েন তিনি।

এ বিষয়ে কারা মহাপরিদর্শক বলেন, ঘটনার পর পরই সোহেল রানাকে মৌখিকভাবে বরখাস্ত হয়। রোববার তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে লিখিত আদেশ দেওয়া হয়েছে।এছাড়া ঘটনা তদন্তে কমিটি করা হয়েছে। আগামী ১২ নভেম্বরের মধ্যে কমিটি প্রতিবেদন দিবে। প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ হবে।

গ্রেফতারের পর সোহেল রানা সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেছেন, জব্দ করা টাকা ঢাকায় নিয়ে চট্টগ্রাম অঞ্চলের কারা উপমহাপরিদর্শক পার্থ গোপাল বণিক ও চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার প্রশান্ত কুমার বণিকের কাছে হস্তান্তরের কথা ছিল।এ বিষয়ে কারা মহাপরিদর্শক বলেন, দুই কর্মকর্তাকে ফাঁসানোর জন্যও এমনটি বলা হতে পারে। তবে যেহেতু অভিযোগ ওঠেছে, সেহেতু বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।যদি সত্যতা পাওয়া যায় তাহলে তাদের বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ