প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কাকডাঙ্গা সীমান্তের সোনাই নদীতে চোরাকারবারীদের টানানো ফাঁদে বিজিবি সদস্যের মৃত্যু

শেখ ফরিদ আহমেদ ময়না, সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: চোরাচালান পণ্য আটক করতে গিয়ে সাতক্ষীরার কাকডাঙ্গা সীমান্তের সোনাই নদীতে চোরাকারবারিদের টানানো দড়ির ফাঁদে আটকে পানিতে ডুবে মারা গেছেন এক বিজিবি সদস্য। নিহত বিজিবি সদস্যের নাম ল্যান্স নায়েক রফিকুল ইসলাম (৩৭)। তিনি কাকডাঙ্গা বিওপির একজন সৈনিক।

নিহত বিজিবি সদস্যের বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলায়। তিনি সম্প্রতি কাকডাঙ্গা ক্যাম্পে যোগদান করেন। শনিবার রাতে এ ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, বাংলাদেশ ও ভারতের চোরাচালানরা সোনাই নদীর পানির নিচ দিয়ে পণ্য আনা-নেয়ার জন্য একটি দড়ি রেখে দেয়। ওই দড়ির মাধ্যমে তারা চোরাচালান পণ্য বাংলাদেশ ও ভারতের দুই পাড়ে আনা নেয়া করে। শনিবার রাতে সোনাবাড়িয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ ভাদিয়ালী সীমান্তের মেইন পিলার ১ সাব পিলার ১৩/৩ এর নিকটে পণ্য আনা নেয়া করার সময় বিজিবি সদস্য রফিকের নেতৃত্বে একটি টহলদল তাদের ধাওয়া করে। এ সময় রফিক চোরাকারবারিদের টানানো ওই দড়িতে জড়িয়ে সোনাই নদীতে পড়ে যান। এরপর ভারতের হাকিমপুরে থাকা সেখানকার চোরাকারবারিরা ওই দড়ি ধরে টান দিলে নদীর মাঝ বরাবর পর্যন্ত চলে গিয়ে তিনি পানিতে ডুবে মারা যান।

বিজিবি সাতক্ষীরা ৩৩ ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে. কর্নেল গোলাম মহিউদ্দিন খন্দকার এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, তাকে উদ্ধার করে রাতেই সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত ডাক্তার ইকবাল মাহমুদ তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এরপর তার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ