প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গণস্বাস্থ্য হাসপাতাল হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় ডাক্তার, নার্স ও কর্মচারীরা আতঙ্কিত : জামায়াত

রফিক আহমেদ : বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরোয়ার বলেছেন, গণস্বাস্থ্য হাসপাতাল দখলের অপচেষ্টা, লুটপাট ও ভাংচুরের পরে সেখানে কর্মরত ডাক্তার, নার্স, কর্মচারী সকলেই আতঙ্কিত। সেখানে চিকিৎসা সেবা বন্ধ থাকায় রোগীরা রোগ যন্ত্রণায় কষ্ট পাচ্ছে। জাতীয় ঐক্যজোটে যোগ দেয়ার কারণেই সরকার তার উপর রুষ্ট হয়ে এ ধরনের ন্যক্কারজনক ও অনৈতিক ঘটনা ঘটিয়েছে। শনিবার এক বিবৃতিতে তিনি এ কথা জানান।

অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরোয়ার জানান, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বিরুদ্ধে ফল চুরি, মাছ চুরি, জমি দখল ও চাঁদাবাজিসহ ৫টি মিথ্যা মামলা দায়ের করার পরে সরকারের মদদপুষ্ট দুর্বৃত্তদের গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র হাসপাতালে হামলা ও দখলের অপচেষ্টা, লুটপাট এবং ভাংচুর করেছে।

তিনি জানান, সরকার ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করতে ব্যর্থ হয়েই তাদের মদদপুষ্ট দুর্বৃত্তদের দিয়ে তার প্রতিষ্ঠানে এ ধরনের ন্যক্কারজনক হামলা চালিয়েছে। তিনি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান। এ ঘটনা থেকেই প্রমাণিত হয় যে, সরকারের সাথে ভিন্ন মত পোষণকারী কারো জানমালের কোন নিরাপত্তা নেই। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ভূমিকাও জনমনে নানা প্রশ্নের সৃষ্টি করেছে। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের পক্ষ থেকে থানায় মামলা দায়ের করতে গেলেও তা গ্রহণ করা হয়নি।

তিনি আরও জানান, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের হামলার ঘটনার মধ্য দিয়ে সরকারের একদলীয় ফ্যাসিবাদী চরিত্রই জাতির সামনে অত্যন্ত নগ্নভাবে প্রকাশিত হয়েছে। সরকারের মদদে এ ধরনের ন্যক্কারজনক ঘটনার বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সোচ্চার হওয়ার জন্য তিনি দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান। তিনি ডাক্তার জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বিরুদ্ধে দায়ের করা সকল মিথ্যা মামলা অবিলম্বে নিঃশর্তভাবে প্রত্যাহার এবং গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র হাসপাতালে ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনায় জড়িত সন্ত্রাসী দুর্বৃত্তদের গ্রেফতার করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ