প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সবচেয়ে বেশি কোটিপতি চীনে, সম্পদ ৯ লাখ কোটি ডলার

রাশিদ রিয়াজ : বিশ্বের কোটিপতিদের নেতৃত্বেও রয়েছে চীন। চীনা কোটিপতিদের সম্পদের পরিমান দাঁড়িয়েছে ৮.৯ ট্রিলিয়ন ডলারে। গত বছর প্রতি সপ্তাহে চীনে দুইজন নতুন কোটিপতির আভির্ভাব ঘটেছে। এ সময় পুরো এশিয়ায় সপ্তাহে ৩ জন কোটিপতির আভির্ভাব ঘটে। একই বছর চীনা কোটিপতিদের সম্পদের পরিমান বৃদ্ধি পেয়েছে ১৯ শতাংশ। ৮.৯ ট্রিলিয়ন ডলার রয়েছে ২ হাজার ১৫৮ চীনা কোটিপতির হাতে। এ তথ্য দিয়েছে সুইস ব্যাংক, ইউবিএস ও অডিট প্রতিষ্ঠান পিডব্লিউসি

গত এক দশকে চীনা কোটিপতিরা বিশ্বে বেশ কিছু সফল ও বৃহত্তম কোম্পানি প্রতিষ্ঠা ও জীবন যাত্রার মান উন্নয়ন করেছে। ইউবিএস গ্লোবাল ওয়েল্থ ম্যানেজমেন্টের আল্ট্র হাই নেট ওয়ার্থ প্রধান জোসেফ স্ট্যাডলার বলেন, গত এক দশকে চীনা কোটিপতিরা তাদের সম্পদের পরিমান বৃদ্ধি করেছে দ্বিগুণ, ৩৯ শতাংশ বৃদ্ধিতে এর পরিমান দাঁড়িয়েছে ১.১২ ট্রিলিয়ন ডলার। তবে যেভাবে চীনে প্রযুক্তিগত উদ্ভাবন, উৎপাদনশীলতা ও সরকারি সহায়তার সমন্বয় ঘটছে তাতে উদ্যোক্তা শ্রেণীর বিকাশের সাথে সাথে জীবন যাত্রার মানও দ্রুত পরিবর্তন ঘটছে।

যুক্তরাষ্ট্রে কোটিপতি বৃদ্ধির হার রয়েছে ১২ শতাংশে। গত বছর যুক্তরাষ্ট্রে ৫৩ জন নতুন কোটিপতির আভির্ভাবে তাদের সম্পদের পরিমান দাঁড়িয়েছে ৩.৬ ট্রিলিয়ন ডলার। ৫ বছর আগে মার্কিন অর্থনীতিতে কোটিপতির সংখ্যা ছিল ৮৭ জন। ইউরোপে মূল্যস্ফীতির মধ্যেও কোটিপতিদের সম্পদের পরিমান বৃদ্ধি পেয়েছে ১৯ শতাংশ, কোটিপতির সংখ্যা ৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে তাদের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪১৪ জনে। সতর্ক করে বলা হচ্ছে, চীন ও মার্কিন বাণিজ্য যুদ্ধের অবসান না ঘটলে সার্বিক অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি হ্রাস পাবে। তবে চীনে বিপুল জনসংখ্যা ও প্রযুক্তি এবং সম্পদ সৃষ্টির কলাকৌশলে সমন্বয় থাকার কারণে দেশটিতে কোটিপতির সংখ্যা বৃদ্ধি অব্যাহত থাকবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ