প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় ডিজিটাল জালিয়াতি চক্রের ৫ সদস্য গ্রেফতার

সুজন কৈরী: বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় মিথ্যা পরিচয়ে পরীক্ষার্থী সেজে অংশগ্রহন করা ডিজিটাল জালিয়াত চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি বিভাগ। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- আনোয়ার হোসাইন রোকন, এসএম শরীফ আহমেদ, নাফিস সাদিক তানজিম, মো. এলাহি দানিয়েল ও আহমেদ শাহরিয়ার তানভীর।

তাদের কাছ থেকে ৭টি বিভিন্ন ব্রান্ডের মোবাইল ফোনসেট জব্দ করা হয়। এছাড়া বিভিন্ন সরকারী দপ্তরে চাকুরীর প্রশ্ন ও বিভিন্ন ডকুমেন্ট ও অর্থ লেনদেনের তথ্য উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনদিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

সাইবার সিকিউরিটি বিভাগ সূত্র জানায়, একটি সংঘবদ্ধ চক্র অন্যের মিথ্যা পরিচয়ে ভূয়া পরীক্ষার্থী হিসেবে বিভিন্ন পাবলিক বিশ^বিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহন করে প্রতারনার মাধ্যমে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। এছাড়া চক্রের কতিপয় সদস্য রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোডের এসএ পরিবহনের অফিসে বিশ^বিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছু পরীক্ষার্থীদের পার্সেলের মাধ্যমে পাঠানো কাগজ-পত্র রিসিভের জন্য অপেক্ষা করছে বলে গোপন সংবাদে জানতে পারে সাইবার সিকিউরিটি বিভাগের ওয়েবসাইট এন্ড ই-মেইল ক্রাইম টিম। পরে বৃহস্পতিবার দুপুরে এসএ পরিবহনের অফিস কাউন্টারে অভিযান চালিয়ে পার্সেল রিসিভের সময় আনোয়ার হোসাইন রোকনকে গ্রেফতার করা হয়। এরপর রোকনের দেয়া তথ্যে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের শিয়া মসজিদের সামনে থেকে বাকীদের গ্রেফফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে সিকিউরিটি বিভাগ সূত্র আরো জানায়, তারা মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে বিভিন্ন পাবলিক বিশ^বিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় মিথ্যা পরিচয়ে পরীক্ষার্থী সেজে অংশগ্রহন করে। এছাড়া তারা ম্যাসেঞ্জার হোয়াটস অ্যাপসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মাধ্যমে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে ইচ্ছুক প্রার্থীদের সঙ্গে চ্যাটিং ও মেসেজ আদান-প্রদানে চুক্তি করত। এ ঘটনায় নিউমার্কেট থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের পাবলিক পরীক্ষা আইনে মামলা হয়েছে। পরে ওই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শুক্রবার তাদের ১০দিনের রিমান্ড আবেদন করে আদালতে পাঠান। সুষ্ঠু তদন্তের জন্য আদালত প্রত্যেকের ৩দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ