Skip to main content

চার বছরে মার্কিন অর্থনীতি এখন সবচেয়ে চাঙ্গা, প্রবৃদ্ধি সাড়ে ৩ শতাংশ

রাশিদ রিয়াজ : মার্কিন অর্থনীতিতে সাড়ে ৩ শতাংশের প্রবৃদ্ধি আভাস ছাড়িয়ে গেছে। চার বছরে ভোক্তা ব্যয়ের বিশাল যোগান বাণিজ্য থেকে যোগানের ফলে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি এখন সবচেয়ে চাঙ্গা। মার্কিন বাণিজ্য বিভাগ বলছে, তৃতীয় প্রান্তিকে যুক্তরাষ্ট্রে উৎপাদিত পণ্য ও সেবাখাতের সমৃদ্ধি এতই চাঙ্গা হয়ে উঠেছে যে আগামী প্রান্তিকে মার্কিন অর্থনীতিতে প্রবৃদ্ধি ৪,২ শতাংশ ছাড়িয়ে গেলে অবাক হওয়ার কিছুই থাকবে না। ২০১৪ সালের পর দুটি প্রান্তিকে মার্কিন অর্থনীতিতে এই প্রথমবারের মত এতটা উল্লম্ফন ঘটেছে। এপি সরকারি অর্থনীতিবিদরা মার্কিন অর্থনীতি নিয়ে যে পূর্বাভাস দিয়েছিলেন, প্রকৃত অর্থে এর গতি তারচেয়েও বেশি। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তার অর্থনৈতিক নীতি কাজ করতে শুরু করেছে বলে যে দাবি করেছেন তা দৃশ্যমান হয়ে উঠেছে। তবে বেসরকারি অর্থনীতিবিদদের আশঙ্কা, সম্প্রতি পুঁজি বাজারে যে পতন ঘটছে তা পুরো অর্থনীতির গতি ফের শ্লথ করে তুলতে পারে। তারা আরো বলছেন, চলতি অর্থবছরে মার্কিন অর্থনীতিতে চাঙ্গা ভাবের কারণে গত ১৩ বছরের মধ্যে প্রবৃদ্ধি ৩ শতাংশের ওপরে উঠলেও চীনের সঙ্গে বাণিজ্য যুদ্ধের কারণে আগামী বছর ২.৪ এমনকি ২০২০ সালে ২ শতাংশের নিচে নেমে যেতে পারে। লসএ্যাঞ্জেলেসের এসএস ইকোনোমিক্সের প্রধান অর্থনীতিবিদ সুং উইন শোহান বলেন, ট্রাম্প প্রশাসন যে দেড় লাখ কোটি ডলারের ছাড় দিয়েছে তাতে মার্কিন অর্থনীতিতে কৃত্রিমভাবে উল্লেখযোগ্য প্রবৃদ্ধি দেখা গেলেও তার আড়ালেই মন্দা অপেক্ষা করছে। মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাংক এ বছর সুদের হার ৩ বার বৃদ্ধি করেছে। আগামী বছর আরো ৩ বার সুদের হার বৃদ্ধি করা হতে পারে। ফলে সার্বিক পরিস্থিতিতে শ্রমবাজার চাঙ্গা হওয়ায় গত ৪৯ বছরের মধ্যে বেকারত্বের হার সর্বনি¤œ ৩.৭ শতাংশে অবস্থান করছে। এরফলে অনাকাঙ্খিত মুদ্রাস্ফীতি ধারে কাছে আসার সুযোগ নেই বলে মনে করা হচ্ছে। এধরনের মূল্যায়ন করে ট্রাম্প প্রশাসন দাবি করছে ভোক্তাদের ব্যয় বেড়েছে যা মার্কিন অর্থনীতির ৭০ শতাংশকে চাঙ্গা রাখতে সাহায্য করছে। দ্বিতীয় প্রান্তিকে বাণিজ্য বৃদ্ধির হার ছিল ১.২ শতাংশ যা তৃতীয় প্রান্তিকে সহজেই ১.৮ শতাংশ অতিক্রম করছে। এর পাশাপাশি রফতানি বৃদ্ধি পেয়েছে ৯.৩ শতাংশ। কিন্তু চীনের সঙ্গে বাণিজ্য যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর তা আগামী প্রান্তিকে ৩ শতাংশে নেমে আসবে। তবে দ্বিতীয় প্রান্তিকে বিনিয়োগ ১ শতাংশ বৃদ্ধির পর তৃতীয় প্রান্তিকে তা আরো ১ শতাংশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। বরাবরের মত আবাসন শিল্পের প্রবৃদ্ধি নিম্নমুখী রয়েছে। দ্বিতীয় প্রান্তিকে ব্যবসা খাতে বিনিয়োগ ৮.৭ শতাংশ বাড়লেও তৃতীয় প্রান্তিকে এসে তা শূণ্য দশমিক ৮ শতাংশ কমছে।

অন্যান্য সংবাদ