প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

উত্তরাঞ্চল ও দূর্গম পাহাড়ী অঞ্চলে ঘাপটি মেরে আছে জঙ্গিরা

ইসমাঈল হুসাইন ইমু : দেশের উত্তরাঞ্চলসহ বিভিন্ন দুর্গম পাহাড়ী অঞ্চলে জঙ্গিরা ঘাপটি মেরে আছে। পান দোকানদার-হকার, মিস্ত্রী, বাস-ট্রাকচালকের সহকারী সেজে তারা তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেফতার এড়াতে বাইরের লোকদের দলে না টেনে পরিবারের সদস্য, আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধবকেই এখন জঙ্গিবাদী মতাদর্শে উদ্বুদ্ধ করছে। গোয়েন্দা সূত্রে এ তথ্য জান গেছে।

সূত্র জানায়, জঙ্গিদের টার্গেট হচ্ছে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নাশকতা চালিয়ে অস্থিতীশিল পরিস্থিতি সৃষ্টি করা। লোকমান হাকিম নামে এক জঙ্গি রাজশাহী অঞ্চলের নেতৃত্বে রয়েছে। জেএমবির এই নেতা সম্প্রতি রাজশহীর বিভিন্ন এলাকায় গোপনে বৈঠক আয়োজন, উগ্রবাদী বই বিতরণ, চাঁদার টাকা আদায়, জিহাদি দাওয়াত ইত্যাদি কর্মকাণ্ডে অংশ নেয়। এরই ধারাবাহিকতায় রাজশাহী জেলার পবা এলাকার জেএমবি নেতা মোজাম্মেল হক ওরফে মোজার বাড়িতে দলীয় সভায় অংশগ্রহণ করে। ওই সভা থেকে মোজাম্মেলসহ সংগঠনের ১২ সদস্যকে পুলিশ গ্রেফতার করলেও মূল হোতা লোকমান হাকিম ও আরও কয়েকজন পালিয়ে যায়। এরপর থেকে লোকমান হাকিম টিউবওয়েলের মিস্ত্রির ছদ্মবেশে সহযোগী সদস্যদের নিয়ে সংগঠনের কাজে বিভিন্ন এলাকায় যাতায়াত শুরু করে। সে সংগঠনের পক্ষ থেকে দাওয়াত দেয়াসহ জেএমবির নতুন সদস্য সংগ্রহের দায়িত্ব পালন করছে। লোকমান হাকিম ছাড়াও আরো কমপক্ষে অর্ধশত জঙ্গি ছদ্মবেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে বিভিন্ন এলাকায়।

এ ব্যাপারে পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি শফিকুল ইসলাম বলেন, হলি আর্টিজানে হামলার পর একের পর এক পুলিশের অভিযানে জঙ্গিরা অনেকটাই কোনঠাসা হয়ে পড়েছে। দেশে বড় ধরনের হামলা চালানোর সক্ষমতা এই মুহূর্তে তাদের নেই। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতায় জঙ্গিরা নিয়ন্ত্রণে রযেছে তবে নির্মূল হয়নি। তাদের চিহ্নিত করে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। জঙ্গিদের একটা অংশ ছদ্মবেশে তৎপর রয়েছে। সম্পাদনা : মাহবুব আলম

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ