প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জঙ্গিদের মোবাইল ফোনটি কোথায়

দৈনিক আমাদের সময় : নরসিংদীতে জঙ্গিবিরোধী অভিযান ‘অপারেশন গর্ডিয়ান নট’ তখন শেষের দিকে। পুলিশের পক্ষ থেকে অনেক চেষ্টার পর আত্মসমর্পণ করে দুই নারী জঙ্গি; কিন্তু পাওয়া যায়নি তাদের একমাত্র মোবাইল ফোনটি। পুলিশের দাবি, তাদের কাছে যাওয়ার আগেই ফোনটি সরিয়ে ফেলে তারা। এটি পরে আর খুঁজে পাওয়া যায়নি। পুলিশের ধারণা, ওই ফোনে নব্য জেএমবির এই গ্রুপটি সম্পর্কে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ছিল।

২০১৬ সালের ১৪ ও ১৫ আগস্ট গাজীপুর ও রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে র্যাব জঙ্গি সন্দেহে চার নারীকে গ্রেপ্তার করে। পরে তারা জামিনে মুক্ত হন। তাদের মধ্যে দুজন খাদিজা পারভীন মেঘলা ও ইশরাত জাহান মৌসুমী ওরফে মৌ ছিল নরসিংদীর মাধবদীর ওই জঙ্গি আস্তানায়। এর আগের দিন নরসিংদীর শেখেরচরের আরেকটি বাড়িতে চালানো অভিযানে আকলিমা আক্তার মণি ও তার স্বামী আবু আবদুল্লাহ আল বাঙ্গালী নিহত হয়। গত ১৬ অক্টোবরের
অপারেশন গর্ডিয়ান নট ৪২ ঘণ্টা ধরে চলে। এই সময়ে নরসিংদীর দুটি জঙ্গি আস্তানায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানের সঙ্গে যুক্ত ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের কর্মকর্তারা বলছেন, প্রথমে কোনোভাবেই আত্মসমর্পণ করতে রাজি হচ্ছিল না মেঘলা ও মৌ। শেষে পুলিশ কঠোর অবস্থান নেওয়ার কথা জানিয়ে দেনদরবার করলে এক পর্যায়ে তারা আত্মসমর্পণে রাজি হয়; কিন্তু আত্মসমর্পণের আগে সংগঠন এবং অন্য সদস্যদের সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য থাকা মোবাইল ফোনটি হাওয়া করে দেয় মেঘলা ও মৌ।
কর্মকর্তাদের ধারণা, আত্মসমর্পণের আগে মোবাইল ফোনটি ভেঙে টুকরো টুকরো করে টয়লেটের কমোডে ফেলে দেওয়া হতে পারে। কারণ আত্মসমর্পণের পর তাদের কাছে থাকা মোবাইল ফোনটির কথা স্বীকারও করে তারা; কিন্তু ফোনের বিষয়ে আর কোনো তথ্য দেয়নি। পরে পুলিশের পক্ষ থেকে ব্যাপক তল্লাশি চালিয়েও এটির হদিস মেলেনি।
সিটিটিসির এক কর্মকর্তা বলেন, জামিনে বেরিয়ে এই তিন নারী জঙ্গি অনলাইনের মাধ্যমে ফের জঙ্গিবাদে জড়ায়। ডিজিটাল প্লার্টফর্ম ব্যবহার করায় তাদের মোবাইল ফোনে এ বিষয়ক প্রয়োজনীয় তথ্য থাকাই স্বাভাবিক। কারণ তারা বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ইন্টারনেটের মাধ্যমেই যোগাযোগ করত। ফোনটি পাওয়া গেলে এই নেটওয়ার্কের বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যেত। এখন এই দুই নারী জঙ্গিকে জিজ্ঞাসাবাদ থেকে পাওয়া তথ্যের ওপর নির্ভর করে তদন্ত কার্যক্রম এগোচ্ছে। এ ছাড়া আরও কিছু আনুসঙ্গিক কাগজপত্র উদ্ঘাটন করা হয়েছে ওই জঙ্গি আস্তানা থেকে। সেসবও বিশ্লেষণ করা হচ্ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ