প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সৌদির ভাষ্য বিশ্বাসযোগ্য : ক্রেমলিন
খাসোগজির লাশ কোথায়, সৌদির কাছে প্রশ্ন এরদোগানের

নূর মাজিদ : তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েব এরদোগান সৌদি আরবের কাছে জামাল খাসোগজির লাশ কোথায় গুম করা হয়েছে তার হদিস জানতে চেয়েছেন। গতকাল শুক্রবার খাসোগজির দেহাবশেষ এর সন্ধানে সৌদি আরবকে সঠিক তথ্য দিতে এরদোগান এই আহ্বান জানান। এদিন তিনি রাজধানী আঙ্কারায় নিজ দল একে পার্টির সদস্যদের প্রতি বক্তব্য দিচ্ছিলেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘আমরা এখন পর্যন্ত যেসব তথ্য প্রকাশ করেছি গোয়েন্দাদের তদন্তে তার চাইতেও বেশি কিছু পাওয়া গেছে।’
মূলত এই বক্তব্যের মাধ্যমে তিনি সৌদি আরবের ওপর সরাসরি হুমকি ও চাপ প্রয়োগ করছেন বলেই আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকেরা জানিয়েছেন। গত ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলস্থ সৌদি দূতাবাসে সৌদি গুপ্তঘাতকদের হাতে নির্মম নির্যাতন ও হত্যার শিকার হন দেশটির ভিন্নমতালম্বী সাংবাদিক জামাল খাসোগজি। শুরু থেকেই এই হত্যাকা-ের ব্যাপারে স¤পূর্ণ দায় এড়িয়ে যায় সৌদি আরব। পরবর্তীকালে তুর্কি গোয়েন্দা তথ্য ও প্রমাণের কারণে সৃষ্ট আন্তর্জাতিক চাপের মুখে এই হত্যার দায় স্বীকার করে সৌদি আরব। দেশটি সর্বশেষ আনুষ্ঠানিক স্বীকারোক্তিতে জানিয়েছে, খাসোগজির লাশ কোথায় তা তারা জানে না, শ্বাসরোধ করে হত্যার পর তার লাশ সৌদি দূতাবাসের এক স্থানীয় সহযোগীর কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার, এই স্থানীয় সহযোগীর পরিচয় প্রকাশেও সৌদি আরবের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন এরদোগান। তিনি বলেন, “সৌদি আরবকে কিছু বিষয় অবশ্যই ব্যাখ্যা করতে হবে। কার নির্দেশে এই হত্যাকা- সংঘটিত হয়েছে এবং কার নির্দেশে ১৫ সদস্যের গুপ্তঘাতক দল সৌদি আরবে এসেছিলো?”
বৃহ¯পতিবার সৌদি আরবের অ্যাটর্নি জেনারেল স্বীকার করেছেন, খাসোগজি হত্যাকা- ছিলো পূর্বপরিকল্পনার ফসল। তবে দেশটির দাবি খাসোগজি হত্যার মূল নায়ক যুবরাজ বিন সালমান এই বিষয়ে কিছুই জানেন না। সৌদি আরবের সামরিক ও গোয়েন্দা বাহিনীর বিচ্ছিন্ন ও উগ্রপন্থী একটি অংশবিশেষ এই হত্যাকা-ে জড়িত। শুরু থেকেই সৌদি আরবের এমন ভাষ্য গোয়েন্দা তথ্যের আলোকে নাকচ করে দিয়েছে বিশ্ব সম্প্রদায়।

গতকাল সৌদি বাদশাহ ফয়সালের সঙ্গে রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনের এক ফোনালাপের পর সৌদি আরবের সরকারি ভাষ্যকে ‘বিশ্বাসযোগ্য’ বলে জানিয়েছে রুশ সরকারের প্রধান কার্যালয় ক্রেমলিন। ক্রেমলিন মুখপাত্র দিমিত্রি পেশকভ বলেন, ‘সৌদি আরবের বক্তব্য অবিশ্বাস করার মতো কোনো কারণ কারোর কাছে নেই।’ এই বিষয়ে ক্রেমলিন সৌদি আরবের তদন্তকে স্বাগত জানায় বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

এদিকে তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটে সাংবাদিক খাসোগজি হত্যাকা- তদন্তে তুরস্ক সফর শেষে দেশে ফিরে দেশটির প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন সিআইএ প্রধান জিনা হ্যা¯েপল। বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউজে ট্রাম্পকে তদন্ত প্রতিবেদন পেশ করেন তিনি। সেখানে ট্রাম্প ছাড়াও মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও উপস্থিত ছিলেন। রয়টার্স/ ওয়াশিংটন পোষ্ট

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ