প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ইন্দোনেশিয়ার সুরাবায়াতে অর্থের বদলে প্লাস্টিকের বোতল দিয়ে কাটা যাবে বাসের টিকিট

আসিফুজ্জামান পৃথিল : ইন্দোনেশিয়ার ২য় বৃহত্তম শহর সুরাবায়াতে প্লাস্টিক অপসারণে অভিনব এক পদ্ধতি গ্রহণ করেছে শহরটির পরিবহণ কতৃপক্ষ। অর্থের পরিবর্তে তারা ব্যবহৃত প্লাস্টিকের বোতলের বিনিময়ে প্রদান করছে বাসের টিকিট। রয়টার্স
শহরটিতে ১০টি প্লাস্টিক কাপ বা ৫টি প্লাস্টিক বোতলের বিনিময়ে ২ ঘন্টা বাসে ভ্রমণের সুযোগ পাচ্ছেন যাত্রীরা। ২০২০ সালের মধ্যে প্লাস্টিকমুক্ত শহর গড়ার উচ্চাকাঙ্খী লক্ষ্যের পথে এগিয়ে যেতেই এ পদক্ষেপ নিয়েছে শহরটি। ইন্দোনেশিয়ার প্রখম শহর হিসেবে এ উদ্যোগ নিয়েছে সুরাবায়া। সুরাবায়ার অধিবাসি লিন্ডা রাহমাওয়াতি এ বিষয়ে বলেন, ‘প্লাস্টিকের বোতলের মতো বর্জ্য আমার বাড়ির পাশে স্থুপাকারে পড়ে থাকে। তাই আমি এটি এখানে এনেছি। এর ফলে শুধু যে পরিবেশ ভালো থাকবে তাইই নয়, বরং আবর্জনা সংগ্রাহকদের কাজও কমবে।’

শহরটির দেওয়া তথ্যানুযায়ী সুরাবায়ার প্রতিদিনের আবর্জনার ১৫ শতাংশ বা ৪০০ টনই প্লাস্টিক বর্জ্য। একটি বাস প্রতিদিন ২৫০ কেজি করে মাসে প্রায় সাড়ে ৭ টন প্লাস্টিক সংগ্রহে সক্ষম। সংগ্রহের পর বোতলগুলোর ঢাকনা আর মোড়ক খুলে ফেলা হয় এবং এগুলো রিসাইকেলিং কোম্পানির কাছে নিলাম করা হয়। এ নিলাম থেক্রে প্রাপ্ত অর্থ বাস পরিচালনা এবং পরিবেশবান্ধব উদ্যোগে ব্যবহৃত হয়।

বিশ্বের চতুর্থ জনবহুল এ দেশটিতে রয়েছে বিশে^র সর্বাধিক বিস্তৃত বর্ষাবন। কিন্তু দেশটিতে একইসঙ্গে রয়েছে ঘনবসতিপূর্র্ণ এবং জনবহুল সংকীর্ণ শহরাঞ্চল। এই হাজারো দ্বীপে নির্মিত দেশটি সমুদ্রে প্লাস্টিক দূষণের জন্য পৃথিবীর সর্বাধিক দায়ী দেশের কাতারে চীনের পরেই ২য় অবস্থানে রয়েছে। বর্তমানে ইন্দোনেশিয়া এ নেতিবাচক স্থান থেকে নিজেদের নাম মুছে ফেলতে চায়। সম্পাদনা: ইমরুল শাহেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ