প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সেতু কর্মসূচিতে ৩ হাজার ৪০০ কোটি টাকা ঋণ অনুমোদন করেছে বিশ্বব্যাংক

সাইদ রিপন : বাংলাদেশের গ্রামীণ সেতু অপারেশন কর্মসূচিতে ৪২.৫ কোটি ডলারের ঋণ অনুমোদন করেছে বিশ্বব্যাংক।স্থানীয় মুদ্রায় এর পরিমাণ ৩ হাজার ৪০০ কোটি টাকা (প্রতি ডলার ৮০ টাকা ধরে)।কর্মসূচিটি বাস্তবায়ন হলে গ্রামীণ সেতু নির্মাণে উন্নত যাতায়াত ব্যবস্থা গড়ে উঠবে।কর্মসূচিটির মাধ্যমে দেশের দুই তৃতীয়াংশ মানুষ উপকৃত হবে।

শুক্রবার বাংলাদেশে বিশ্বব্যাংকের অফিস থেকে এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়।

ঋণ অনুমোদনের বিষয়ে বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর কিমিয়াও ফ্যান বলেছেন, বাংলাদেশের গ্রামীণ বেশিরভাগ সড়কগুলোই ব্রিজের মাধ্যমে যুক্ত আছে।দূরবর্তী এলাকায় বসবাসকারী গ্রামীণ জনগোষ্ঠীদের সড়ক নেটওয়ার্ক বাড়াতে গ্রামীণ সেতু অপারেশন কর্মসূচিটি সহায়ক ভূমিকা রাখবে। এর মাধ্যমে গ্রামীণ মানুষকে বাজার, হাসপাতাল, স্কুলের পাশাপাশি জীবিকার জন্য নতুন সুযোগ তৈরি করবে। বিশ্বব্যাংকের সিনিয়র ট্রান্সপোর্ট বিশেষজ্ঞ এবং টিম লিডার ফরহাদ আহমেদ বলেছেন, বিশ্বব্যাংকের এ ঋণের মাধ্যমে পরিকল্পনা, নকশা, মান নিয়ন্ত্রণ এবং গ্রামীণ সেতুগুলো পরিচালনা করার জন্য প্রাতিষ্ঠানিক ক্ষমতা বৃদ্ধিতে বাংলাদেশ সরকারকে সমর্থন করবে।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বাংলাদেশের নদীমাতৃক দেশ হওয়ায় যোগাযোগের উন্নয়নে ব্রিজের ব্যবহার বেশি। তাছাড়া সেতু দেশের রাস্তা সিস্টেমে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ইউনিয়ন বা উপজেলায় প্রতিটি ৪.৫ কিলোমিটার সড়কের জন্য একটি সেতু প্রয়োজন। এ প্রকল্পটির মাধ্যমে ৬১ জেলায় গ্রামীণ সেতু নির্মাণ করা হবে। ১৯টি উপকূলীয় জেলায়, প্রকল্প জলবায়ু স্থিতিশীল বৈশিষ্ট্য অন্তর্ভুক্ত করতে সেতু নির্মাণ বা পুনর্নির্মাণ হবে। বিশ্বব্যাংকের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সমিতির (আইডিএ) কাছ থেকে ক্রেডিটটি পাঁচ বছরের গ্রেস পিরিয়ডসহ ৩০ বছরের মেয়াদে এ ঋণ পরিশোধ করতে হবে।স্বাধীনতার পর বাংলাদেশকে সমর্থন করার জন্য প্রথম বিকাশের অংশীদারদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে বিশ্বব্যাংক।

সম্পাদনা: হুমায়ূন কবির খোকন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত