প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভারত ও চীনকে বাদ দিয়ে রোহিঙ্গা সংকটের সমাধান সম্ভব নয় : সৈয়দ মাহমুদ

অপু খান : মালয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের চায়না স্টাডিজ ইনস্টিটিউটের গবেষক ড. সৈয়দ মাহমুদ আলী বলেছেন, ভারত এবং চীনকে বাদ দিয়ে রোহিঙ্গাদের সংকট সমাধান সম্ভব নয়।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে চীনের জাতিসংঘের হস্তক্ষেপের বিরোধিতা প্রসঙ্গে বিবিসি বাংলাকে তিনি এ কথা বলেন।

ড. মাহমুদ আলী বলেন, বাংলাদেশের দুটি  প্রতিবেশী ও বন্ধুরাষ্ট্র ভারত এবং চীনের সহযোগিতার মাধ্যমেই মিয়ানমারের সাথে আলোচনা করা সম্ভব।

তিনি বলেন, গত দু’ দশক ধরে চীনের ৮০ থেকে ৮৫ শতাংশ বাণিজ্য সমুদ্রপথে হচ্ছে। সেই বাণিজ্য মালাক্কা প্রণালী দিয়ে হয় এবং চীন জানে যে তার সাথে শত্রুভাবাপন্ন দেশ যুক্তরাষ্ট্র এবং তার আঞ্চলিক মিত্ররা চাইলেই চীনের বাণিজ্য বন্ধ করে দিতে পারে। এটাকেই বলে চীনের মালাক্কা সংকট। এখন বাণিজ্য পথ খোলা রাখার জন্য চীন যদি সেখানে নৌবাহিনী পাঠায় – তাহলে সংকট আরো ঘনীভূত হবে।

তিনি আরো বলেন, মালাক্কা সংকটের কথা মাথায় রেখেই চীনের স্থলপথে বিভিন্ন পাইপলাইনের মাধ্যমে তেল এবং গ্যাস  চীনে পৌঁছানোর ব্যবস্থা করেছে। এরকম দুটি পাইপলাইন আরাকান অর্থাৎ মিয়ানমারের ভেতর দিয়ে বঙ্গোপসাগরে এসে পৌঁছেছে।

ভারতে এ ধরনের বিনিয়োগ রয়েছে কালাদান এবং সিটওয়ে বন্দরে। চীনের অর্থনীতির জন্য এ দুটি পাইপলাইন বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। সে জন্যই চীন চাইছে না যে মিয়ানমার সরকার যেন আরাকানের ওপর তাদের নিয়ন্ত্রণ হারায় এবং আরাকানকে কেন্দ্র করে চীন-মিয়ানমার সম্পর্ক খারাপ হোক।

তিনি জানান, তিব্বতে ১৯৫৪ সালে যখন গৃহযুদ্ধ চলছিল তখন যুক্তরাষ্ট্র এবং ভারত তিব্বতী যোদ্ধাদের সমর্থন দিচ্ছিল। সেই যুদ্ধ অবসানের লক্ষ্য নিয়ে চীন এবং ভারত সরকার ১৯৫৪ সালে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে। সেই চুক্তিতে আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে পাঁচটি আদশের কথা বলা হয়েছিল।

তার প্রথমটি ছিল কোন দেশই অন্য কোন দেশের অভ্যন্তরীণ ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করবে না। জাতিসংঘের সনদেও এমনটা লেখা আছে।

সূত্র :বিবিসি বাংলা

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ